অভিভাবক ও জন প্রতিনিধিদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

অভিভাবক ও জন প্রতিনিধিদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শিক্ষার্থীদের ঝরে পড়া রোধে শিক্ষক, অভিভাবক ও জন প্রতিনিধিদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই সঙ্গে স্বচ্ছল ব্যক্তিদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন নিজ এলাকার স্কুলগুলোতে স্ব উদ্যোগে টিফিনের ব্যবস্হা করারও। প্রধানমন্ত্রী বলেন,বিএনপি -জামায়াতের সময় কমে যাওয়া সাক্ষরতার হার শতভাগে উন্নীত করার জন্য  কাজ করছে সরকার।  রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ‘আর্ন্তজাতিক সাক্ষরতা’ দিবসের অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এবারের সাক্ষরতা দিবসের প্রতিপাদ্য  ‘অতীতকে জানবো,আগামীকে গড়বো’।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, শিক্ষা কারো সুযোগ নয়, শিক্ষা সবার অধিকার। দেশে এখন প্রাথমিক শিক্ষাসহ সব ধরনের শিক্ষার ক্ষেত্র সম্প্রসারিত হয়েছে। বিএনপি -জামায়াতের শাসনামলে শিক্ষার হার বাড়েনি, কমে তা ৪৪ শতাংশে নেমে এসেছিলো। কিন্তু বর্তমানে সর্বাত্মক চেষ্টায় সেই হার ৭১ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। যা শতভাগে উন্নীত করার জন্য  কাজ করছে সরকার।

শির্ক্ষাথীদের ঝড়ে পরা রোধে ছাত্র সংগঠন, শিক্ষক, অভিভাবক ও জন প্রতিনিধিদের নিজ নিজ এলাকায় কাজ করার আহবান জানান প্রধানমন্ত্রী ।

এছাড়াও দেশের চরাঞ্চল,হাওড়,বাওড় এলাকায় শিক্ষার্থীদের জন্য আবাসিক স্কুল করা উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী ।

শিক্ষার মান উন্নয়নে মাধ্যমিক পর্যন্ত বিনা মূল্যে বইয়ের পাশাপাশি এক কোটি আঠাশ লাখ শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদান করা হচ্ছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × 3 =

আরও

শরণার্থী পুনর্বাসন নিয়ে কথা বলায় অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী ম্যালকম টার্নবুলের সাথে ফোনালাপ শেষ না করেই, তড়িঘড়ি ফোন রেখে দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ফোনালাপকে সবচেয়ে খারাপ বলে উল্লেখ করেছেন তিনি। বুধবার