যুক্তরাষ্ট্রের গণতন্ত্র বারবার হুমকির মুখে পড়ছে বলে মন্তব্য করেছেন বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।

যুক্তরাষ্ট্রের গণতন্ত্র বারবার হুমকির মুখে পড়ছে বলে মন্তব্য করেছেন বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।

যুক্তরাষ্ট্রের গণতন্ত্র বারবার হুমকির মুখে পড়ছে বলে মন্তব্য করেছেন বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। প্রেসিডেন্ট হিসেবে বিদায়ী ভাষণে তিনি গণতন্ত্র রক্ষায় মার্কিন নাগরিকদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন। বলেন, সতর্ক না হলে গণতন্ত্র সঙ্কটে পড়তে পারে। এছাড়া, অভিবাসী, সংখ্যালঘু মুসলিম সম্প্রদায়সহ সব ধর্ম ও জাতি বর্ণের মানুষকে পারস্পারিক সহযোগিতার মানসিকতা গড়ে তোলার আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি। বিস্তারিত ডেস্ক রিপোর্টে…..

বিদায় বেলায় মার্কিনীদের বৈষম্যহীন আচরণ ও গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। শুনিয়েছেন আশা ও স্বপ্নের কথা। পরিবর্তনে ভয় না পেয়ে নিজেদের ওপর আস্থা রেখে সামনে এগিয়ে চলার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

নিজের আট বছরের শাসনামলের সফলতার কথা উল্লেখ করতে গিয়ে অর্থনৈতিক পরিস্থিতি পুনরুদ্ধার, কিউবার সঙ্গে সম্পর্ক পুনঃস্থাপন, জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের প্রসঙ্গ টানেন ওবামা।  আর প্রেসিডেন্ট হিসেবে  টানা আট বছরের এসব সফলতার সব ভাগ যুক্তরাষ্ট্রবাসীকেই দিলেন তিনি।

আট বছর আগে যখন দায়িত্ব নিয়েছিলাম, তার তুলনায় যে কোনো বিচারে আমেরিকা এখন ভালো ও শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে।

তবে যুক্তরাষ্ট্রে এখনো বর্ণবাদ রয়েছে বলে স্বীকার করেন তিনি। শুধু আইন করে বর্ণ বিদ্বেষ দূর করা সম্ভব নয়, জানিয়ে বর্ণবাদের বিরুদ্ধে মার্কিনীদের মানসিকতার পরিবর্তনের প্রয়োজন বলে উল্লেখ করেন তিনি। ভাষণে, অভিবাসীদের প্রসঙ্গে ওবামা বলেন, অভিবাসীরা যুক্তরাষ্ট্রকে আরো সমৃদ্ধ করেছে।

মুসলিম আমেরিকানদের বিরুদ্ধে বৈষম্য প্রত্যাখ্যান করতে হবে। সংখ্যালঘুরা বিশেষ আচরণ চায় না, তারা চায় বৈষম্যহীন আচরণ। বিভাজনকে অতিক্রম করে পরস্পরের মতামতকে শ্রদ্ধা করতে হবে। আর তখনই জাতি হিসেবে শ্রেষ্ঠত্বের দাবি করতে পারবো আমরা।

আশা ও পরিবর্তনের ডাক দিয়ে ২০০৮ সালে প্রথমবার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়ে শিকাগোতেই বিজয়ী সমাবেশ করেছিলেন ওবামা। বিদায়ী ভাষণের জন্য তাই হোয়াইট হাউসের বদলে শিকাগোকেই বেছে নিয়েছেন তিনি। বক্তব্যের এক পর্যায়ে আবেগ ধরে রাখতে পারেননি জনপ্রিয় এই প্রেসিডেন্ট।  অশ্রু সজল চোখে ধন্যবাদ জানিয়েছেন স্ত্রী, কন্যাসহ হোয়াইট হাউজের সব কর্মীকে।

শাকিলা সুলতানা, বাংলাভিশন নিউজ ডেস্ক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 − one =

আরও

রাজনীতি নয় ৭১-এ অপরাধেই যুদ্ধাপরাধিদের ফাঁসি হয়েছে; ডাভোস সম্মেলনে জানালেন প্রধানমন্ত্রী, সার্কের কার্যকারিতা হারানোর অভিযোগ নাকচ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সার্কের কার্যকারিতা এখনো শেষ