ভারতের করোনা টিকায় পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

ছবি: সংগ্রহ

ভারতে করোনা টিকা গ্রহীতাদের শরীরে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেয়া দেয়ার খবর দিয়েছে স্থানীয় একাধিক গণমাধ্যম। নয়াদিল্লি, তেলেঙ্গানা, কলকাতাসহ ভারতের বিভিন্ন এলাকায় এ ধরণের জটিলতায় আক্রান্তের সংখ্যা একশ’র কাছাকাছি।

ভারতে করোনা টিকাদান কর্মসূচির প্রথম দিনে তিন লাখ মানুষকে এই সুবিধার আওতায় আনার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হলেও টিকা পেয়েছেন এক লাখ ৯১ হাজার মানুষ। নয়াদিল্লিতে করোনা টিকাগ্রহণের পর ৫২জন স্বাস্থ্যকর্মীর ও তেলেঙ্গানা রাজ্যে ১১জনের শরীরে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। ভারতের বার্তাসংস্থা এএনআই জানিয়েছে, কলকাতাতেও এক নার্সের শরীরে শনিবার টিকা দেয়ার পর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। একজনকে ২ ঘণ্টার জন্য হাসপাতালে ভর্তিও করা হয়।

এদিকে, শুরুর দিনেই বন্ধ হয়ে গেছে মহারাষ্ট্রের টিকাদান কর্মসূচি। তথ্য নিবন্ধনের অ্যাপসে কারিগরি জটিলতা তৈরি হওয়ায় সোমবার পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে মহারাষ্ট্রের টিকাদান কর্মসূচি। অক্সফোর্ড- অ্যাস্ট্রাজেনেকা’র কোভিশিল্ড ও ভারত বায়োটেকের কোভ্যাক্সিন- টিকা দুইটি প্রয়োগের জন্য অনুমোদন দেয়া হলেও ভারতীয় কোভ্যাক্সিন টিকা গ্রহণে দেশটির অধিকাংশ চিকিৎসকই আগ্রহী নন বলে জানিয়েছে সম্প্রচারমাধ্যম এনডিটিভি।

শনিবার মানীশ কুমার নামের এক পরিচ্ছন্নতা কর্মী প্রথম ব্যক্তি হিসেবে টিকা গ্রহণ করেন। গোটা ভারত জুড়ে এই কর্মসূচির উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। প্রথম ধাপে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ১ কোটি স্বাস্থ্যকর্মী ও স্বেচ্ছাসেবীকে টিকা দেয়া হবে। পরের ধাপে টিকা গ্রহণের সুযোগ পাবেন পঞ্চাশোর্ধ ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠী।

You may also like

করোনায় ৭ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৬১৯ জন

করোনাভাইরাসের সংক্রমণে ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও সাত জন