বরিশালে আট ঘণ্টার ব্যবধানে আইসোলেশনে থাকা দু’জনের মৃত্যু

বরিশালে আট ঘণ্টার ব্যবধানে আইসোলেশনে থাকা দু’জনের মৃত্যু হয়েছে। তবে তারা করোনা আক্রান্ত ছিলেন কিনা তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী, খুলনা ও জামালপুরে সর্দি, জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে মারা গেছেন তিনজন। এদিকে, করোনার উপসর্গ নিয়ে ঠাকুরগাঁওয়ের একই পরিবারের পাঁচজন ভর্তি হয়েছেন রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। রবিবার সকালে বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালের পরিচালক ডাক্তার বাকির হোসেন জানান, পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে রেফার করার পর শনিবার বিকালে স্বজনরা তাকে বরিশাল মেডিকেলে ভর্তি করে। এদিকে শনিবার রাতে করোনা ওয়ার্ডে মারা যান এক নারী। শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। সর্দি, জ্বর ও তীব্র শ্বাসকষ্ট নিয়ে ঠাকুরগাঁওয়ের একই পরিবারের পাঁচজন ভর্তি হয়েছেন রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে। তারা গত পাঁচ দিন ধরে অসুস্থ হয়ে বাড়িতেই ছিলেন। পরিবারের কর্তা রুহুল আমিন স্বপরিবারে ঢাকার মিরপুরে থাকতেন। সেখানেই হোটেল ব্যবসা করতেন তিনি। মঙ্গলবার স্বপরিবারে গ্রামের বাড়িতে যান রুহুল আমিন। এর পর একে একে অসুস্থ হয়ে পড়েন তারা।

রাজশাহী মেডিকেলে সর্দি-জ্বর নিয়ে মারা গেছেন নওগাঁর এক দোকান কর্মচারী। তবে তিনি মেনিনজাইটিস রোগে আক্রান্ত ছিলেন-দাবি চিকিৎসকের। করোনা আক্রান্ত সন্দেহে নাটোর থেকে রাজশাহী মেডিকেলে পাঠানো বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের শরীরে সংক্রমনের আলামত পাওয়া যায়নি বলে নিশ্চিত করেছেন নাটোরের বাগাতিপাড়া নির্বাহী কর্মকর্তা। এদিকে, তীব্র জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হওয়া এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে। তড়িঘড়ি করে মৃতদেহ নিয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন স্বজনরা। চট্টগ্রামের ফৌজদারহাটের বিআইটিআইডিতে এখন পর্যন্ত ১৫ জনের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। কারও শরীরে করোনা ভাইরাস পাওয়া যায়নি। নতুন কাউকে কোয়ারেন্টিনেও নেয়া হযনি। খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশনে থাকা বৃদ্ধ সুলতান শেখ সকালে মারা গেছেন। তার শরীরের নমুনা সংগ্রহ করেছে আইইডিসিআর। করোনা আতংকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল এখন রোগী শূন্য। জেলার আইসোলেশন ওয়ার্ডগুলোতে এখনো কোন রোগী ভর্তি হয়নি। খাগড়াছড়িতে কোয়ারেন্টিন থেকে ৯৩ জনকে ছাড়পত্র দিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। জেলা সদর হাসপাতালের আইসোলেশনে মারা যাওয়া যুবকের দেহে করোনার সংক্রামন না পাওয়ায় স্বস্তি ফিরেছে জেলাবাসীর মধ্যে।

You may also like

স্ট্যামফোর্ডের শিক্ষার্থী সিফাতের জামিন

পুলিশের মামলায় জামিন পেয়েছেন স্ট্যামফোর্ডের শিক্ষার্থী সাহেদুল ইসলাম