জ্বর, সর্দি ও ডায়রিয়ায় কুমিল্লা ও গাজীপুরে দুই যুবকের মৃত্যু

জ্বর, সর্দি ও ডায়রিয়ায় কুমিল্লা ও গাজীপুরে মারা গেছে দুই যুবক। দেশের বিভিন্ন জায়গায় করোনা রোগী বাড়ছে প্রতিদিনই। পাশাপাশি, বাড়ছে হোম কোয়ারেন্টিনে যাওয়া মানুষের সংখ্যাও। গত কয়েকদিন ধরে জ্বর সর্দি ও ডায়রিয়ায় ভুগছিল কুমিল্লা চৌদ্দগ্রামের যুবক মহিন উদ্দিন। মঙ্গলবার রাতে মৃত্যু হয় তার। মহিনের নমুনা সংগ্রহ করেছে স্বাস্থ্যবিভাগ। ক’দিন থেকে শ্বাসকষ্ট, সর্দি- কাশি ও ঠাণ্ডায় ভুগে মধ্যরাতে গাজীপুরের কাপাসিয়ায় মারা গেছেন এক প্যারামেডিকেল চিকিৎসক। স্থানীয়রা জানান, নারায়ণগঞ্জের একটি হাসাপাতালে শিক্ষানবিশ ছিলেন তিনি।

এদিকে, নারায়ণগঞ্জ থেকে সাতক্ষীরার দেবহাটা এলাকায় যাওয়া চারটি পরিবারকে লকডাউন ঘোষণা করেছে স্থানীয় প্রশাসন। এছাড়া, করোনা সন্দেহে এক নারীকে সাতক্ষীরা কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শরীয়তপুরের চন্দ্রপুর রায়পুরে মারা যাওয়া নারীর শরীরে করোনার উপসর্গ পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে সিভিল সার্জন। জয়পুরহাটে করোনা আক্রান্ত সন্দেহে আরো চারজনকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। শেরপুরে আক্রান্ত দুই নারীর শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পর তাদের সংস্পর্শে যাওয়া ১৯ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এঘটনায় পুরো এলাকা লকডাউন থাকায় দুর্ভোগে সাধারণ মানুষ।

 

You may also like

সামাজিক দূরত্বের কোনো বালাই নেই লঞ্চে

সামাজিক দূরত্বের কোনো বালাই নেই লঞ্চে। যাত্রীরা মানছেন