রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে আবারো চিকিৎসা সেবা শুরু

রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে আবারো শুরু হয়েছে চিকিৎসা সেবা। তবে বন্ধ আছে গাইনি ও শিশু ওয়ার্ড। আগুন লাগার পর যারা হাসপাতাল ছেড়েছেন তাদের কেউ কেউ ফিরেছেন। স্বাস্থ্য মন্ত্রী জানিয়েছেন, রোগীরা যেখানে চিকিৎসা নিতে চাইবেন সেখানেই ব্যবস্থা করা হবে। দুর্ঘটনায় কোনো রোগী আহত বা মারা যায়নি বলেও জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।  বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের নতুন ভবনের শিশু ও গাইনি ওয়ার্ডে আগুন লাগে। চিকিৎসা সেবা বন্ধের পাশাপাশি দ্রুত সময়ের মধ্যেই রোগীদের বিভিন্ন হাসপাতালে সরিয়ে নেয়া হয়। তবে, শুক্রবার সকাল থেকেই আবার চালু হয়েছে হাসপাতালের চিকিৎসা সেবা। নতুন রোগীরা যেমন আসছেন তেমনি হাসপাতাল ছাড়ছেনও কেউ কেউ।

এদিকে, এক ব্রিফিংয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, রোগীদের সেবা নিশ্চিতে হাসপাতালের বেশিরভাগ ওয়ার্ড চালু করা হয়েছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, রোগীদের হাসপাতালে ফিরিয়ে আনার বিষয়টি নির্ভর করছে তাদের বর্তমান অবস্থা ও ইচ্ছার ওপর। অন্য হাসপাতালে থাকলেও তাদের চিকিৎসা নিশ্চিত করা হবে বলেও জানান তিনি। সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে আগুন লাগার ঘটনায় এরইমধ্যে গঠিত স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তদন্ত কমিটি কাজ শুরু করেছে। তিন দিনের মধ্যেই তদন্ত রিপোর্ট প্রকাশ করার কথাও জানানো হয় ব্রিফিংয়ে।

 

 

You may also like

সুবর্ণচরে ধর্ষণের মামলায় আসামি রুহুল আমিনের জামিন প্রত্যাহার

কথামত ভোট না দেয়ায় নোয়াখালীর সুবর্ণচরে স্বামী-সন্তানকে বেঁধে