অ্যাপসে সমস্যা; ট্রেনের আগাম টিকেট পেতে ভোগান্তি

অনলাইন বা অ্যাপসের মাধ্যমে ট্রেনের আগাম টিকেটে আজও ভোগান্তি। টিকেট জুটছে সর্বোচ্চ শতকরা পাঁচজনের ভাগ্যে। অ্যাপস অন করলেই ইন্টারনেটে ধারগতির কারনে দীর্ঘ লাইনেই টিকেট কাটতে হচ্ছে তাদের। সেখানেও ভোগান্তি। কর্তৃপক্ষ বলছে, টিকেট কাটতে জাতীয় পরিচয়পত্র এন্ট্রি করায় লাইন এগুচ্ছে না। অনলাইন সার্ভারে ধীরগতির জন্য দূষলেন এক সাথে অনেক গ্রাহকের হিট করাকে। রাজধানীর পাঁচটি পয়েন্ট থেকে এবছর ঈদের আগাম টিকেট দেয়া হলেও কমলাপুর স্টেশনে ভিড় অন্য বছরের মতোই। লাইনে দাঁড়ানোর পাশাপাশি সবাই চেষ্টা করছেন অনলাইনে বা অ্যাপসের মাধ্যমে টিকেট পেতে। তবে সেখানেও ভাগ্য খুলছে না। অ্যপস চালু করলেই বিপত্তি। টিকেট দুরে থাক, সার্ভাইন চালু হচ্ছে না।

টিকেট প্রত্যাশীরা বলছেন, তথ্য প্রযুক্তির উৎকর্ষতার এই সময়ে এসেও দীর্ঘ লাইনের এই অপেক্ষা বেমানান। তাও যদি লাইন দ্রুত এগোয়। কর্তৃপক্ষ বলছে, মাত্র পাঁচ শতাংশ গ্রাহক অনলাইনে বা অ্যাপসের মাধ্যমে টিকেট পাচ্ছে। খুলনা, রাজশাহী, চট্টগ্রাম অঞ্চলের প্রায় সবাই অনলাইনে টিকেটের চেষ্টা করছে। অন্যদিকে, অবিক্রিত থেকে যাচ্ছে সিলেট ময়মনসিংহসহ কিছু অঞ্চলের গ্রাহকদের অনলাইন টিকেট। এত বিপত্তির পর যারা টিকেট পাচ্ছেন, তাদের যেন রাজ্য জয়ের হাসি। নিয়মিত চলাচল করা ৩৩ টি আন্তঃনগর ট্রেনের জন্য প্রতিদিন ২৫ হাজার একশ’ ৭৯টি অগ্রীম টিকেট বিক্রি করছে রেলওয়ে। ২৬ শে মে পর্যন্ত টিকেট বিক্রি অব্যাহত থাকবে। ফিরতি টিকেট বিক্রি শুরু হবে ২৯ মে থেকে।

 

You may also like

বৃষ্টির বাধা পেরিয়ে শুরু হয়েছে ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট যুদ্ধ

বৃষ্টির বাধা পেরিয়ে আবারো শুরু হয়েছে ভারত- পাকিস্তান