করোনার থাবায় আয় রোজগার কমে ঢাকা ছাড়ছে মানুষ

করোনা ভাইরাসের থাবায় আয় রোজগার কমে এমনকি কর্ম হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে পড়েছে নিম্ন-মধ্যবিত্ত ও নিম্ন আয়ের মানুষ। জীবিকার এমন সংকট দেখা দেয়ায় ঢাকা ছাড়তে শুরু করেছে মানুষ। তাতে রাজধানীর অনেক বাড়িতে ভাড়াটিয়া সংকট দেখা দিয়েছে। সেজন্য এখন বাড়িতে বাড়িতে ঝুলছে বাসাভাড়া দেয়ার বিজ্ঞাপন ‘টু লেট’। বিশেষজ্ঞরা বলছেন এতে করে দীর্ঘমেয়াদী সামাজিক ও অর্থনৈতিক সমস্যা বাড়বে। বেকার, ভাগ্যান্বেষী, বিদ্যান্বেষীসহ নানা শ্রেণির মানুষের ‘স্বপ্ন গড়ার শহর’ ছিল ঢাকা। সেজন্য দিন দিন এই নগরে ভীর বাড়ছিল জ্যামিতিক হারে। এভাবে দেড় হাজার বর্গকিলোমিটারের এ নগরীতে বাসিন্দার সংখ্যা দাঁড়িয়ে যায় প্রায় দুই কোটি, যাদের প্রায় ৮০ শতাংশই ভাড়া বাসার বাসিন্দা। কিন্তু গত মার্চে দেশে করোনাভাইরাস হানা দেয়ার পর খেয়ে পড়ে বেঁচে থাকা মধ্যভিত্তির স্বপ্ন ভাঙতে শুরু করেছে।

সম্প্রতি ব্র্যাকের এক প্রতিবেদনে দেখা গেছে, ৩৬ শতাংশ লোক চাকরি হারিয়েছেন তিন শতাংশের চাকরি থাকলেও বেতন পাননি। দৈনিক মজুরি ভিত্তিতে যারা কাজ করেন তাদের ৬২ শতাংশই কাজের সুযোগ হারিয়েছে। সেই সাথে ঢাকা জেলার মানুষের আয় কমেছে ৬০ শতাংশ।যারা ছোটখাটো কাজ করে ঢাকায় পরিবার নিয়ে চলেন তারা আর ঢাকায় টিকতে পারছেন না কর্মের অভাবে। করোনা পরিস্থিতিতে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখে গেছে, বেশিরভাগ বাড়িতেই দু-একটা ফ্ল্যাট ফাঁকা আছে। ভাড়াটিয়া চেয়ে ‘টু লেট’ লেখা বিজ্ঞাপন সাঁটানো থাকলেও বাড়ির মালিকরা ভাড়াটিয়া খুঁজে পাচ্ছেন না। সমাজ বিশ্লেষকরা বলছেন করোনা শুধু আর্থিক বিপর্যয় ডেকে আনে নি ডেকে এনেছে মানসিক বিপর্যয়ও। কাজ হারানো চাকরি হারানো মানুষগুলোর যদি আবার কর্মসংস্থানের সুযোগ না হয় তাহলে আরো বিপদ বাড়বে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় করোনায় অনেক প্রতিষ্ঠানই এখন আর্থিক ভাবে বিপর্যস্ত, কোনটি চালু হলেও, হয়েছে অনেক ছোট পরিসরে ফলে অনেক কর্মীকে চাকরি হারাতে হয়েছে। রিয়াদ তালুকদার, বাংলাভিশন, ঢাকা।

You may also like

হাওরে ট্রলার ডুবিতে দুই শিশুসহ ১৭ জনের প্রাণহানী

নেত্রকোনায় মদনের রাজালিকান্দা হাওরে ট্রলার ডুবে কমপক্ষে ১৭