স্বাস্থ্যবিধির কোনো বালাই নেই গণপরিবহনে

স্বাস্থ্যবিধির কোনো বালাই নেই গণপরিবহনে। বাসে আসনের অতিরিক্ত যাত্রী ওঠানোর বিধিনিষেধ থাকলেও তা মানছে না অনেকেই। বেশিরভাগ হেল্পারের মুখে নেই মাস্ক। এছাড়া, যাত্রীদের মাঝেও লক্ষ্য করা যায় স্বাস্থ্যবিধি না মানার প্রবণতা। প্রত্যেকটি গণপরিবহনে জীবানুনাশক স্প্রে থাকার কথা থাকলেও তা দেখা যায়নি বেশিরভাগ বাসে।

মহামারি করোনায় ৬০ শতাংশ ভাড়া বাড়িয়ে অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখে গণপরিপরিবহন চলাচলের অনুমতি দিয়েছিল সরকার। সেই অনুমতি বাতিল করে ১ সেপ্টেম্বর থেকে পূর্বের ভাড়ায় ফিরে যাওয়ার নির্দেশনা দেয়া হয়। যত আসন তত যাত্রী নিয়ম করা হলেও কোনো কোনো বাসে দাঁড়িয়ে যাত্রী বহন করতে দেখা যায়।

কোনো বাসেই দেখা যায়নি স্যানিটাইজার বা জীবাণুনাশকের ব্যবহার। বেশিরভাগ গণপরিবহনের স্টাফের মুখে নেই মাস্ক। দু-একজন যারা পড়েছেন. তাও আবার ঝুলছে গলায়।  যাত্রীরা মনে করেন, করোনার মহামারিকে এখন খুব একটা পাত্তা দিতে চাচ্ছেনা না কেউ।  পূর্বের ভাড়ায় ফিরে যাবার কথা থাকলেও অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের অভিযোগও ছিল কারো কারো মুখে।

 

You may also like

পটুয়াখালী স্পীডবোট ডুবির ঘটনায় চারজনের লাশ উদ্ধার

পটুয়াখালীর আগুনমুখা নদীতে স্পীডবোট ডুবির ঘটনায় পাঁচজনের লাশ