ঢাকায় ফিরেছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল

সকালে ইংল্যান্ড থেকে ঢাকায় ফিরেছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। বিমানবন্দরে অধিনায়ক মাশরাফি মর্তুজা বলেছেন, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমিফাইনালে খেলা অনেক গৌরবের, তবে বড় সুযোগ হাতছাড়া হয়েছে বাংলাদেশের।

এই টুর্ণামেন্টের অভিজ্ঞতায় সামনের বড় আসরগুলোতে পরিণত ক্রিকেট খেলার আশা তার। টুর্ণামেন্টে তরুনরা প্রত্যাশিত নৈপুন্য দেখাতে না পারায় হতাশা প্রকাশ করলেও আগামীতে ভাল করতে তাদের ওপর ভরসা রাখছেন মাশরাফি।

বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসে এযাবত সবচেয়ে বড় অর্জনের কৃতিত্ব নিয়ে ঘরে ফিরেছে মাশরাফির দল। প্রথমবারের মতো আইসিসির কোন টুর্ণামেন্টে সেমিফাইনালে খেলা। আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ ও ইংল্যান্ডে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি মিলিয়ে ৫০ দিনের দীর্ঘ সফর শেষে দেশে ফেরা বীর ক্রিকেটারদের বিমানবন্দরে অভিনন্দন আর শুভেচ্ছায় বরন করে নেন বিসিবি কর্তারা।

সেরা আট দলের এলিট ক্রিকেট চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ডের সাথে কঠিন গ্রুপ থেকে শেষ চারে খেলা বড় প্রাপ্তি। কিন্তু এই প্রাপ্তিতে তৃপ্ত নন টাইগার ক্যাপ্টেন। ভারতের বিপক্ষে সেমিফাইনালে সামর্থ্যের পুরোটা দিতে পারেনি বাংলাদেশ দল। আক্ষেপ বড় সুযোগ হাতছাড়া হওয়ার। তবুও মাশরাফি আশাবাদি ভবিষ্যতে কাজে দেবে এবারের শিক্ষা।

ভারতের সাথে বাংলাদেশ দলের হারার আগেই হেরে বসার মানষিকতায় হতাশ মাশরাফি। তার মতে লড়াইয়ের জন্য ফ্লাট উইকেটে বোলারদের দক্ষতা দেখানো উচিত ছিলো।  সাকিব, মুশফিক, রিয়াদ সহ দলের সিনিয়ররা ভাল খেলেছেন।

কিন্তু তাদের সাথে দায়িত্ব নিয়ে খেলতে পারেননি সাব্বির, সৌম্যরা। তরুনদের পারফরমেন্স হতাশার হলেও তাদের ভবিষ্যত উজ্জ্বল মনে করছেন মাশরাফি। ২০১৯ বিশ্বকাপে এরাই পরিণত ক্রিকেট খেলবে আশা তার। দলের সাথে ফেরেননি সাকিব, মুশফিক ও ইমরুল কায়েস। দেশে ফিরেই প্রায় চার সপ্তাহ’র লম্বা ছুটিতে যাচ্ছেন ক্রিকেটাররা।

You may also like

পবিত্র হজে যাওয়ার জন্য এখনো অপেক্ষায় প্রায় ৪৬ হাজার যাত্রী

পবিত্র হজে যাওয়ার জন্য রাজধানীর আশকোনায় এখনো অপেক্ষায়