একসঙ্গে ৭৩ কৃত্রিম উপগ্রহ পাঠিয়ে রেকর্ড গড়লো রাশিয়া

রাশিয়া একবারে ৭৩টি উপগ্রহ মহাকাশে পাঠিয়ে নতুন রেকর্ড সৃষ্টি করেছে। সুয়জ ২.১-এ রকেট দিয়ে এসব উপগ্রহ মহাকাশে পাঠানো হয়েছে। রাশিয়া এর আগে একসঙ্গে ৩৬টি কৃত্রিম উপগ্রহ মহাকাশে পাঠিয়েছিল।
কাজাখস্তানের বাইকোনুর কসমোড্রাম উৎক্ষেপণকেন্দ্র থেকে রকেটটি মহাকাশে ছোঁড়া হয়। এতে কানোপাস ভি-আইকেসহ ৭২টি কৃত্রিম ক্ষুদে উপগ্রহ ছিল। অগ্নিকাণ্ড এবং জরুরি অবস্থা পর্যবেক্ষণের কাজ করার জন্য বিশেষভাবে তৈরি করা হয়েছে কানোপাস ভি-আইকে উপগ্রহকে।

এছাড়া, রয়েছে মায়াক নামের ক্ষুদে উপগ্রহ। রুশ এ কৃত্রিম উপগ্রহে রয়েছে বিশাল আকারের সৌর প্রতিফলক বা সোলার রিফ্লেকটর। মায়াককে কক্ষপথে স্থাপনের পর পিরামিড আকৃতির এ সৌর প্রতিফলক ছাতার মতো খুলে যাবে। সৌর রশ্মির প্রতিফলন ঘটিয়ে রাতের আকাশকে উজ্জ্বল করার কাজে এটি ব্যবহৃত হবে। মানুষের তৈরি কক্ষপথ পরিক্রমণকারী সবচেয়ে উজ্জ্বল বস্তু হবে এটি। মহাকাশে দৃষ্টিগ্রাহ্য উজ্জ্বল বস্তুগুলোর ক্ষেত্রে এর অবস্থান হবে চতুর্থ। এ সারিতে যথাক্রমে রয়েছে সূর্য, চাঁদ এবং শুক্র।

অবশ্য রাতের আকাশকে উজ্জ্বল করে তোলার এ প্রচেষ্টা নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। অনেকেই অভিযোগ করেছেন এতে আলোদূষণ ঘটবে এবং অন্ধকার আকাশে নক্ষত্র দেখার সুযোগ আরো কমবে। নগর সভ্যতার বিস্তার ঘটার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে আলোদূষণ বাড়ছে।

এছাড়া, সুয়জ ২.১এ রকেট দিয়ে যেসব উপগ্রহ পাঠানো হয়েছে তার মধ্যে জাপান, নরওয়ে, কানাডা এবং আমেরিকার অনেক সংস্থার কৃত্রিম উপগ্রহ রয়েছে। এসব কৃত্রিম উপগ্রহ সফলভাবে রকেট থেকে বিচ্ছিন্ন হয়েছে বলে খবর দিয়েছে রুশ সংবাদ মাধ্যম। উপগ্রহবাহী রকেটে সংযুক্ত ছিল ফ্রিগেট বুস্টার। ফ্রিগেট বুস্টারের মাধ্যমে এসব উপগ্রহকে নানা কক্ষপথে স্থাপন করা হবে। কাজ শেষে এটি ভারত মহাসাগরের পূর্ব নির্ধারিত এলাকায় পড়বে।

You may also like

সাইবার হামলার সম্ভাব্য ক্ষতি ১২ হাজার কোটি ডলার!

বিশ্বব্যাপী সাইবার আক্রমণের পরিমাণ এখন এতোটাই বেড়েছে যে