মধ্যস্বত্বভোগীদের দৌরাত্ম্য কমাতে হবেঃ বাণিজ্যমন্ত্রী

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, মধ্যস্বত্বভোগীদের দৌরাত্ম্য কমাতে হবে। ব্যবসায়ী এবং সরকার বসে ঠিক করবে তেলের দাম কতো হওয়া উচিৎ। তবে দাম নির্ধারণ করা মুশকিল, যতোদিন আমদানির ওপর নির্ভরশীল থাকবে বাংলাদেশ। রমজান মাসকে সামনে রেখে টিসিবির মাধ্যমে ভোজ্য তেলসহ বিভিন্ন পণ্যের পরিমাণ তিনগুণ বৃদ্ধির কথা জানান বাণিজ্যমন্ত্রী।

দুই মাসের ব্যবধানে লিটার প্রতি সয়াবিন তেলের দাম বেড়েছে ২০ থেকে ২৫ টাকা। কারণ হিসেবে আন্তর্জাতিক বাজারের দোহাই দিচ্ছেন পাইকারি ও খুচরা ব্যবসায়ীরা। টাল-মাটাল ভোজ্য তেলের বাজার কিভাবে স্থিতিশীল রাখা যায়, এ নিয়ে রবিবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে ব্যবসায়ীদের সাথে বৈঠকে বসে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। কেন আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বাড়লে বাংলাদেশে তেলের দাম বেড়ে যায়, এর রহস্য উদঘাটনে বৈঠক থেকে একটি জাতীয় কমিটি গঠন করা হয়।

তবে আন্তর্জাতিক বাজারের সাফাই গেয়ে তেলের দাম বাড়ানোর কোন সদুত্তর দিতে পারেননি ভোজ্য তেল অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট মোস্তফা হায়দার

তেলের দাম নিয়ন্ত্রণে রাখা নিয়ে তেমন কোন আশার বাণী শোনাতে না পারেননি বাণিজ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক বাজার দরের সঙ্গে সমন্বয় করে দেশীয় বাজারে ভোজ্য তেলের দাম ঠিক করা হবে। এজন্য ট্যারিফ কমিশনের নেতৃত্বে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে নিয়ে একটি কমিটি করা হয়েছে। কমিটি অবিলম্বে একটি প্রতিবেদন দেবে।

তবে রমজানে মানুষের ভোগান্তি হবে না বলে আশ্বাস দেন তিনি। টিপু মুনশি বলেন, পণ্যের মজুদ বৃদ্ধি করে, তারপর বিক্রি করা হবে। মন্ত্রী বলেন, এসি ঘরের সোফায় বসে মধ্যস্বত্বভোগীরা মুনাফা খাচ্ছে। উৎপাদক এবং ভোক্তার মাঝামাঝি ফড়িয়াদের দৌরাত্ম্য কমাতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কঠোর মনিটরিং করবে বলেও উল্লেখ করেন মন্ত্রী।

হাত বদল হওয়ার কারণে বাজারে যেনো তেলের দামের হেরফের না হয়, সেদিকে ব্যবসায়ীদের নজর দেয়ার তাগিদ মন্ত্রীর।

 

You may also like

জিয়াউর রহমানের অবস্থান স্বাধীনতাযুদ্ধের ইতিহাসের ক্ষুদ্র জায়গায় : কৃষিমন্ত্রী

পাকিস্তানের এ দেশীয় দোসর ও তাঁবেদাররা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা