পর্যাপ্ত চাল কিনতে না পারায় বাজার নিয়ন্ত্রণ সম্ভব হয়নিঃ কৃষিমন্ত্রী

কৃষক পর্যায় থেকে পর্যাপ্ত চাল কিনতে না পারায় বাজারে চালের দাম নিয়ন্ত্রণ সম্ভব হয়নি বলে মন্তব্য করেছেন কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক। বাজার নিয়ন্ত্রণে কৃষি ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয় যৌথভাবে কাজ করবে বলেও জানান তিনি।

মঙ্গলবার বিকেলে চাল, আলু ও পেঁয়াজের প্রাপ্যতা ও দামের অস্থিরতা শীর্ষক বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন মন্ত্রী। কৃষিমন্ত্রী আরো জানান, এ বছর কৃষক পর্যায় থেকে ধান সম্ভব হয়নি। গুদামে পর্যাপ্ত চাল না থাকার সুযোগ নিয়েছে মিলার ও পাইকাররা।

এ প্রসঙ্গে কৃষিমন্ত্রী বলেন, লাগাতর বন্যার কারণে আউশ ও আমনে চালের উৎপাদন কম হয়েছে। অন্যদিকে, সরকারিভাবে ধান চাল সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত না হওয়া ও সরকারি খাদ্যগুদামে পর্যাপ্ত মজুত না থাকায় মিল মালিক ও পাইকাররা সুযোগ নিয়েছে। বাজারের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে। এটি ভবিষ্যতে যাতে না হয় সেজন্য আগামী বোরো মৌসুমে ধান চাল কেনার লক্ষ্যমাত্রা পূরণে সবধরনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে। চাল কিনে সরকারি মজুত বাড়ানো হবে যাতে বাজার সরকারের নিয়ন্ত্রণে থাকে।

এসময় পেঁয়াজসহ বিভিন্ন নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের বাজার দরের অস্থিরতা প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে মন্ত্রী, পেঁয়াজের নতুন নতুন জাত বৃদ্ধিতে উদ্যোগী হতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানান। তবে নিত্যপণ্যের বাজারের স্থিতিশীলতা আনার কথা জানিয়ে  ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, বাজার নিয়ন্ত্রণ নেয়া হবে কঠোর পদক্ষেপ।

 

You may also like

বাইডেন-ট্রুডো’র প্রথম বৈঠক

প্রথমবারের মতো বৈঠক করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন