ঈদে বাংলাভিশনের পর্দায় বিশেষ টেলিফিল্ম – জুনিয়র আর্টিস্ট লতিফ

সুমন আনোয়ার-এর রচনা ও পরিচালনায় টেলিফিল্ম ‘জুনিয়র আর্টিস্ট লতিফ’ বাংলাভিশনে প্রচার হবে ঈদের ৬ষ্ঠ দিন বেলা ২টা ১০ মিনিটে। টেলিফিল্মে অভিনয় করেছেন আফরান নিশো, মৌসুমী হামিদ, শাহেদ শরিফ খান, সাহেদ আলী সুজন, আহসান হাবিব নাসিম, সাজ্জাদ রেজা ও একটি বিশেষ চরিত্রে চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন প্রমুখ।

কাহিনী সংক্ষেপ: একজন জুনিয়র আর্টিস্ট পেশাগত কারণে কতরকম হাস্যকর পরিস্থিতিতে সিরিয়াস অভিনয়ের চেষ্টা করে যান লতিফ তার প্রমাণ। লতিফ এর বয়স ৩৫, কিন্তু স্কুলের হাফ প্যান্ট পরা স্কুল বয় থেকে বাসার কাজের বুয়া সব চরিত্রেই তাকে দেখা যায় অক্লান্ত অভিনয় করতে মূল অভিনেতার পেছনে আউট অফ ফোকাস-এ, প্রতিদিন নতুন নতুন সেট, নতুন নতুন নায়ক নায়িকা, লতিফ নির্জনে চুপচাপ সেটে অপেক্ষা করে ভোর থেকে শেষ রাত পর্যন্ত কখন তার ডাক আসবে ক্যামেরার সামনে। সারাদিন অবহেলা অপমান আর গঞ্জনা সহ্য করে যখন ডাক পরে ক্যামেরার সামনে তখন কিন্তু লতিফ নতুন জীবন ফিরে পায়, যদিও বেশীর ভাগ চরিত্রে কোন সংলাপ থাকে না, থাকে না ক্যামেরার ফোকাস, তবুও লতিফ বড় অভিনেতা হওয়ার যুদ্ধ চালিয়ে যায়।
একদিন এর ঘটনা, সকাল থেকেই লতিফ সেটে উপস্থিত, বড় নায়ক নায়িকার ভিড়ে লতিফ এর জায়গা হয়নি মেকআপ রুমে, সবার খাওয়া শেষে বেঁেচ যাওয়া ঠান্ডা নাস্তা ও ভাতই ছিল লতিফের সারাদিনের খাবার, বয়দের কাছে চা-পানি চাওয়ার সাহস হয়নি লতিফের। কিন্তু অভিনয় শেষে অর্থ নিয়ে বাড়ী ফেরার অপেক্ষা আর শেষ হয় না লতিফ এর, যখন ডাক পরলো লতিফ এর, তৈরী লতিফ এই প্রথম ফোকাস শর্ট দিবে, কিন্তু তখন নায়িকা বের হয় মেকআপ নিয়ে আর সমস্ত ইউনিট নায়িকাকে নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়লো। আবার লতিফ এর অপেক্ষার পালা, রাত তখন প্রায় ১২ টা। নায়ক-নায়িকা একটা রোমন্টিক সিন করতে পারছে না, বার বার নায়ক ফেল করছে। সবাই হতাশ বিরক্ত, তখনই লতিফ সেটে এসে নায়িকার হাত ধরে পুরো রোমান্টিক সিনটা পরিচালকের চাওয়া অনুযায়ী করে সকলকে তাক লাগিয়ে দেয়। বাকীটা জানা যাবে টেলিফিল্মের শেষে।

– গুলশান হাবিব রাজীব

You may also like

আর্জেন্টিনাকে শেষ মুহূর্তের গোলে হারিয়ে ব্রাজিলের প্রতিশোধ

চির প্রতিদ্বন্দ্বী আর্জেন্টিনাকে শেষ মুহূর্তের গোলে হারিয়ে গত