পাবনায় খোলা আকাশের নিচে আমদানি করা হাজার হাজার টন সার

বাফার গুদাম না থাকায় পাবনার নগরবাড়ি ঘাট এলাকায় বিদেশ থেকে আমদানি করা হাজার হাজার টন ইউরিয়াসহ বিভিন্ন ধরনের সার স্তুপ করে রাখা হয়েছে খোলা আকাশের নিচে। রোদ-বৃষ্টিতে মাসের পর মাস এভাবে পড়ে থাকায় নষ্ট হচ্ছে সারের গুনগতমান। ঝাঁঝালো গন্ধে স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে স্থানীয়রা।

বিসিআইসি ও বিভিন্ন আমদানিকারক চীন, মিশর, সৌদি আরব ও তিউনিশিয়াসহ বিভিন্ন দেশ থেকে ইউরিয়া, ডিএপি, এমওপি ও টিএসপি সার সমুদ্র পথে নিয়ে আসে চট্টগ্রাম বন্দরে। সেখান থেকে নৌপথে উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন জেলায় পাঠানোর জন্য পাবনার নগরবাড়ী ঘাটে নেয়া হয় এই সার। উত্তরাঞ্চলের ১৪টি বাফার গুদামে মজুদ রয়েছে প্রায় এক লাখ ২৫ হাজার টন ইউরিয়া সার।

বাফার গুদামগুলোতে জায়গা না হওয়ায় যমুনা নদীর পশ্চিম পাড়ে খোলা আকাশের নিচে মাটিতে স্তুপ করে রাখা হয়েছে হাজার হাজর মেট্রিক টন সার। এছাড়াও খালাসের অপেক্ষায় ঘাটে নোঙর করে আছে অনেক জাহাজ। স্তুপ করা সারের ঝাঁঝালো গন্ধে দূষিত হচ্ছে এলাকার পরিবেশ। সমস্যা সমাধানে বাফার গুদাম নির্মান কাজ দ্রুত শেষ করার দাবি জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। সার রাখার সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা চায় পাবনাবাসী।

You may also like

বাঁধাকপি বিদেশে রফতানি, খুশি চাষীরা

বাংলাদেশের বাঁধাকপি এখন বিদেশে রফতানি হচ্ছে। এরই মধ্যে