অনলাইন ক্লাসের সুবিধা বঞ্চিত নিম্ন ও নিম্নমধ্যবিত্ত লাখো শিক্ষার্থী

অন লাইন ক্লাসের সুবিধা বঞ্চিত দেশের নিম্ন ও নিম্নমধ্যবিত্ত পরিবারের লাখো শিক্ষার্থী। স্মার্ট ফোন এবং ইন্টারনেট সুবিধা না থাকা সহ নানা অসুবিধার কারণে অনলাইন ক্লাস করতে পারেনি বিপুল সংখ্যক দরিদ্র শিক্ষার্থী। তাদের জন্য বিকল্প ব্যবস্থার কথা ভাবতে সরকারকে তাগিদ শিক্ষাবিদদের। মহাখালির এরশাদনগর বস্তিতে স্ত্রী আর পাঁচ ছেলে নিয়ে থাকেন জামাল হোসেন।

দুই ছেলে মোহাম্মদ মুসলিম এবং মোহাম্মদ রোকন ইসলাম পড়াশুনা করে মহাখালি মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। স্বল্প আয়ের জামাল হোসেন জানান, তিন মাস আগে স্কুল থেকে মোবাইলে পড়াশোনার গাইড লাইন দেয়ার কথা বলা হয়। কিন্তু স্মার্ট ফোন কেনার মতো সামর্থ না থাকায় অনলাইন ক্লাসের তথ্যাদি পাওয়া যায়নি। তাই স্বল্প শিক্ষিত জামাল হোসেন নিজ দায়িত্বে যতটুকু জানেন ততটুকুই পড়াচ্ছেন ছেলেদের।

রাজধানীর ঢাকার নিম্নবিত্ত পরিবারের এসব শিক্ষার্থীদের মতো সারাদেশে এ রকম লাখো শিক্ষার্থী অনলাইন ক্লাসের সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। স্কুলের শিক্ষকরা জানান, অনেক শিক্ষার্থীই তাদের অনলাইন ক্লাসে যোগ দিতে পারছে না। নিম্নবিত্ত পরিবারের সুবিধাবঞ্চিত এসব শিক্ষার্থীদের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার তাগিদ শিক্ষাবিদদের। করোনার দ্বিতীয় ঢেউ কিছুটা কমলে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পর্যায়ক্রমে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা যায় কিনা সে ব্যাপারে চিন্তাভাবনা করার তাগিদ বিশেষজ্ঞদের।

জাহাঙ্গীর আকন্দ, বাংলাভিশন, ঢাকা।

You may also like

বাঁধাকপি বিদেশে রফতানি, খুশি চাষীরা

বাংলাদেশের বাঁধাকপি এখন বিদেশে রফতানি হচ্ছে। এরই মধ্যে