হিলিতে শুরু হয়েছে ইরি-বোরো ধানের আবাদ

হিলিতে শুরু হয়েছে ইরি-বোরো ধানের আবাদ। কৃষকরা বলছেন, উৎপাদন খরচ বাড়লেও বাড়ছে না ধনের দাম। ফলে দিন-দিন ধান আবাদে আগ্রহ হারিয়ে ফেলছেন এই অঞ্চলের কৃষক। চলতি বোরো মৌসুমে জেলায় ইরি আবাদের লক্ষমাত্রা অর্জনেও দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা। কৃষি সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ধানের কাঙ্খিত দাম না পাওয়ায় অন্য ফসলের দিকে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের। হিলিসহ আশপাশের উপজেলাতে এখন বোরো আবাদে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষকরা। মাঠে-মাঠে চলছে ধান লাগানো ও জমি তৈরীর কাজ। কৃষকের এই ব্যস্ততা চলবে আরো কয়েক সপ্তাহ।আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে ইরি’র বাম্পার ফলনের আশা কৃষকদের।

তবে গত বছরের তুলনায় এবার বেড়েছে সার, বীজ, সেচ, শ্রমিক মুজুরীসহ ধান উৎপদন খরচ। কৃষকদের অভিযোগ, উৎপাদন খরচ বাড়লেও বাড়ছেনা ধানের দাম। কৃষি কর্মকর্তা জানান, জেলার ১৩টি উপজেলায় ১লাখ ৭৩ হাজার হেক্টর জমিতে ইরি আবাদের লক্ষমাত্র নির্ধারণ করা হয়েছে। আবাদ কম হওয়ার কারণ হিসেবে, ধানের কাঙ্খিত দাম না পাওয়াকেই দায়ি করছেন সংশ্লিষ্টরা। কৃষকদের ধান চাষে উৎসাহি করতে ধানের ন্যায্য মূল্য নিশ্চিতসহ সার, বীজ, সেচ ও কৃষি উপকরণের দাম কমিয়ে আনতে সরকারে প্রতি আহ্বান দিনাজপুরের কৃষকদের।

You may also like

জাতীয় পার্টিতে কোন বিভেদ নেই

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদের বলেছেন, দলের