করোনার প্রভাবে মহাসংকটে এভিয়েশন খাত

করোনার প্রভাবে মহাসংকটে এভিয়েশন খাত। পরিস্থিতি খারাপ হওয়ায় আন্তর্জাতিক ফ্লাইট নেটওয়ার্ক থেকে প্রতিদিনই ছিটকে পড়ছে বিভিন্ন দেশ। যাত্রীসংখ্যা উদ্বেগজনক হারে কমে যাওয়ায় বেসরকারি খাত শুধু নয়, আড়াইশ’ কোটি টাকা লোকসানের আশঙ্কা করছে রাষ্ট্রায়ত্ত্ব প্রতিষ্ঠান-বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। করোনার থাবায় পর্যটন খাতের ক্ষতিও হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন উদ্যোক্তারা। করোনা যত ছড়াচ্ছে, ততই প্রকট হচ্ছে আকাশপথে যোগাযোগে নিষেধাজ্ঞা। চীন বা পশ্চিমা দেশ শুধু নয়, নিজের দেশের নাগরিকদের জন্য বাধ্য হয়েই ফ্লাইট বাতিল বা বন্ধ করছে এয়ারলাইন্সগুলো। আগে যেখানে দিন ৩০ হাজার যাত্রী আকাশপথে পাড়ি জমাতো তা এখন নেমেছে আট হাজারের ঘরে।

যাত্রী কমায় ইউএস বাংলা, নভো ও রিজেন্টের মতো রাষ্ট্রীয় পতাকাবাহী এয়ারলাইন্স- বিমানও এরইমধ্যে বাতিল করেছে ১৫২টির বেশি ফ্লাইট। যুক্তরাজ্য ছাড়া ইউরোপের অন্য কোনো দেশের যাত্রী পরিবহন না করারও সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিমান। এভিয়েশনের মতো শোচনীয় অবস্থা পর্যটন খাতেও। ভ্রমণ ভিসা স্থগিতের খবরে ক্রমেই ছোট হচ্ছে পর্যটন জাল। করোনার ধাক্কায় পর্যটকের সংখ্যা তলানিতে নামায় হুমকিতে পর্যটন শিল্প।  সহসাই করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হলে এভিয়েশন ও পর্যটন খাতে ভয়াবহ বিপর্যয়ের আশঙ্কা করছেন এ খাতের উদ্যোক্তারা। জিয়াউল হক সবুজ, বাংলাভিশন, ঢাকা।

You may also like

০৫ এপ্রিল, রবিবার ২০২০

সকাল ৮:৩০ : দিন প্রতিদিন বেলা ১১:০৫ :