খুন, অপহরণ আর চাঁদাবাজির পর জঙ্গি সম্পৃক্ততায় বান্দরবান এখন এক আতঙ্কের জনপদ

খুন, অপহরণ আর চাঁদাবাজির পর জঙ্গি সম্পৃক্ততায় বান্দরবানের বাইশারী এখন এক আতঙ্কের জনপদ। চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে আত্মঘাতি বোমা বিস্ফোরণে নিহত চার জঙ্গির সকলেই নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারীর বাসিন্দা।

গত বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত এক বৌদ্ধ ভিক্ষু, আওয়ামী লীগ নেতা মংশৈলু মার্মা হত্যা এবং বাইশারী বাজারে বোমা বিস্ফোরণের রহস্য উদঘাটন হওয়ার আগেই, নতুন উৎকণ্ঠা বান্দরবানের বাইশারী জনপদে। গত বৃহস্পতিবার সীতাকুণ্ডের ছায়ানীড়ে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় নিহত পাঁচজনের চারজনই  বান্দরবানের বাইশারীর যৌথ খামারপাড়ার বাসিন্দা।

এ ঘটনার পর জঙ্গি নেতা এনামকে আটক করে পুলিশ। এছাড়া, সাত মাস আগে বাইশারীর যৌথ খামারপাড়া ছেড়ে চট্টগ্রামে চলে যায় নিহত জোবাইদার ভাই জহিরুল হক, বোন মঞ্জিয়ারা বেগম এবং ভাবী রাজিয়া বেগমও।

এদিকে, জঙ্গি সম্পৃক্ততার খবর বাইশারীতে পৌঁছার পর, যৌথ খামারপাড়ায় নিহত ও আটক জঙ্গিদের বাড়িতে অভিযান চালায় পুলিশ। তবে অভিযানে তেমন কিছু পাওয়া যায়নি বলে জানায় পুলিশ।

You may also like

‘কান’-এর রেড কার্পেটে রূপকথা তৈরি করলেন ঐশ্বর্যা

৭০তম কান চলচ্চিত্র উৎসবের রেড কার্পেটে ঐশ্বর্যাকে দেখে