ভয়াবহ ১৭ আগস্ট আজ

ভয়াবহ ১৭ আগস্ট আজ। ২০০৫ সালে সারাদেশে একযোগে বোমা হামলা চালিয়ে সাংগঠনিক সামর্থের জানান দিয়েছিলো জঙ্গিরা। বিচারকাজ শেষ না হওয়ার জন্য রাষ্ট্রপক্ষকে দুষছে আসামিপক্ষ। আর রাষ্ট্রপক্ষ বলছে, সাক্ষীর অভাবেই এখনো শেষ হচ্ছে না বিচার।

২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট, শুধু মুন্সিগঞ্জ বাদে দেশের ৬৩জেলায় এক সাথে সিরিজ বোমা হামলা চালিয়েছিলো নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জামায়াতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশ, জেএমবি। পরে একের পর এক বোমা হামলায় প্রাণ হারান বিচারক, আইনজীবী ও পুলিশসহ ৩৩ জন।

সিরিজ বোমা হামলায় ১৬১ মামলায় আসামি করা হয় সাতশ’ জনকে। পরে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযানে ধরা পড়ে জেএমবি’র শীর্ষ সারির নেতারা। শায়খ আব্দুর রহমান, সিদ্দিকুর রহমান বাংলা ভাইসহ অর্ধডজন শীর্ষ জঙ্গির ফাঁসিও কার্যকর করা হয়। তারপরও অর্ধডজন মামলা এখনো বিচারাধীন।

মামলাগুলো নিষ্পত্তি না হওয়ার জন্য একে অপরকে দায়ি করেন আসামি ও রাষ্ট্রপক্ষ। আইন-শৃংখলা বাহিনীর অভিযানে জেএমবি কাবু হলেও উত্থান ঘটেছে নব্য জেএমবির। তাই শুধু জঙ্গি দমন করেই জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণ সম্ভব নয় বলে মনে করেন এই অপরাধ বিশ্লেষক। ধর্মের নামে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড রুখতে ইসলামের সঠিক ব্যাখ্যা প্রচারের সাথে সাথে গোয়েন্দা তৎপরতা বাড়ানোর তাগিদ বিশ্লেষকদের।

-জিয়া খান

You may also like

নির্বাচনে দায়িত্ব পালনে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাদের নির্দেশ; সিইসি’র

নিরপেক্ষতা বজায় রেখে নির্বাচনে দায়িত্ব পালনে সহকারি রিটার্নিং