খাগড়াছড়িতে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দু’ গ্রুপের সংঘর্ষ

খাগড়াছড়িতে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে পাহাড়ি দু’গ্রুপের গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে ছয়জন নিহত হয়। আহত তিনজনের অবস্থা আশংকা জনক। নিহতদের মধ্যে তিনজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন ইউপিডিএফ-প্রসীত গ্রুপের পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সভাপতি তপন কুমার চাকমা, একই গ্রুপের এলটন চাকমা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় নেতা পলাশ চাকমা।

স্বনির্ভর বাজার এলাকায় সকাল সাড়ে সাতটা থেকে সাড়ে আটটা পর্যন্ত এ গুলিবিনিময়ের ঘটনা ঘটে। এতে ঘটনাস্থলেই চারজনের মৃত্যু হয়। আহত পাঁচজনকে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে নেয়ার পর সেখানে মারা যান আরো দু’জন। বাকি তিনজনের মধ্যে দু’জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আতঙ্কে বন্ধ হয়ে গেছে স্বনির্ভর বাজার। খাগড়াছড়ি-পানছড়ি সড়কে যান চলাচলও বন্ধ।

হামলা চালানো হয় স্বনির্ভর বাজারের পুলিশ বক্সেও। কোন দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে তা নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ। এখনো পর্যন্ত কোন পক্ষ ঘটনার দায় স্বীকার করেনি। আঞ্চলিক সংগঠনগুলোর আধিপত্য বিস্তার নিয়ে গত কিছুদিন থেকে বারবার অশান্ত হয়ে উঠছে খাগড়াছড়ি।

এর আগে গত মে মাসে নানিয়ারচর উপজেলা চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমা নিহতের জেরে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত হন ইউপিডিএফ-গনতান্ত্রিক এর কেন্দ্রীয় আহবায়ক তপন জ্যোতি চাকমাসহ পাঁচজন।

You may also like

দেশে আসা নতুন মাদক ”খাট” ইয়াবার চেয়েও ক্ষতিকারক

দেশে আসা নতুন মাদক ”খাট” ইয়াবার চেয়েও ক্ষতিকারক।