মিরপুরে ছাত্রলীগের হাতে যুবলীগ কর্মী নিহত

রাজধানীর মিরপুরে কাঁচাবাজার, ফুটপাতের চাঁদাবাজি ও এলাকার আধিপত্য নিয়ে ছাত্রলীগ-যুবলীগ সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছে। দুই গ্রুপে আহত হয়েছে সাতজন। নিহত রোমানকে নিজেদের কর্মী বলে দাবি করেছে স্থানিয় যুবলীগ। এ ঘটনায় কয়েকজনকে আটক করলেও তা স্বীকার করেনি পুলিশ।

সোমবার দুপুরে একদল যুবক মোটরসাইকেল নিয়ে মহড়া দেয় মিরপুর ৬ নম্বর কাঁচাবাজার এলাকায়। অন্য গ্রুপটি তাদের ধাওয়া দিলে বাধে সংঘর্ষ। ঘটনাস্থলেই নিহত হয় রোমান নামে এক যুবক। স্থানীয় যুবলীগের দাবি – রোমান তাদের কর্মী। রক্তাক্ত কয়েকজনকে হাসপাতালে নিতে দেখেছে স্থানীয়রা।

পুলিশ বলছে, আধিপত্য বিস্তারে এলাকায় যুবলীগ-ছাত্রলীগের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে চলা লড়াইয়ের জেরেই এ সংঘর্ষ ও হত্যাকাণ্ড। হত্যাকারীরা এরইমধ্যে সনাক্ত হয়েছে বলেও জানায় পুলিশ। স্থানীয়রা জানায়, চাঁদাবাজিসহ আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ছাত্রলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, শ্রমিক লীগের কয়েকটি গ্রুপ মিরপুর ৬-নম্বর এলাকায় অনেকদিন থেকেই তৎপর। গত ক’দিন ধরে তারা আরো বেপরোয়া।

এস এম ফয়েজ, বাংলাভিশন,ঢাকা।

You may also like

পুঁজিবাজারে এখনো কারসাজি চলছে: অর্থমন্ত্রী

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তাফা কামাল বলেছেন, কিছু