ক্যাসিনো অপরাধীদের দেশত্যাগ ঠেকাতে বেনাপোলে সর্বোচ্চ সর্তকতা

ক্যাসিনো কেলেঙ্কারিতে জড়িত আসামিদের দেশত্যাগ ঠেকাতে বেনাপোল সীমান্তে সর্বোচ্চ সর্তকতা জারি করা হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় সতর্কতার বিষয়টি বেনাপোল ইমিগ্রেশন ও বিজিবি কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করেছেন। ইমিগ্রেশনের ওসি মহসিন খান জানান, যোগাযোগ ব্যবস্থ্যা সহজ হওয়ায় বেনাপোল ইমিগ্রেশন ও সীমান- পথে বিভিন্ন কৌশলে তারা ভারতে চলে যেতে পারে। ফলে সীমান্তে পুলিশ ইমিগ্রেশনে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন ও সীমান্ত এলাকা ঘুরে পুলিশ ও বিজিবির এ নজরদারি ও সতর্কতা চোখে পড়ে। ইমিগ্রেশনে ভারতগামী পাসপোর্টধারী যাত্রীদের নাম, ঠিকানা যাচাই ও পাসপোটের্র সঙ্গে তাদের ছবি মিলিয়ে দেখা হচ্ছে সতর্কতার সাথে। এছাড়া একাধিক বা জাল পাসপোর্ট যাতে ব্যবহার করতে না পারে সে জন্য যাত্রীর ছবি তোলা সহ  ও হাতের ছাপ মিলিয়ে দেখা হচ্ছে। কোনো ভাবেই যাতে অবৈধভাবে কেউ সীমান- অতিক্রম করতে না পারেন সে জন্য সীমানে- বিজিবি সদস্যরা নিরাপত্তা ব্যবস্থা বাড়িয়েছে।

বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহাসিন খান পাঠান জানান, ঢাকা পুলিশের এসবি (স্পেশাল ব্রাঞ্চ) থেকে তাদের কাছে একটি নির্দেশনা এসেছে। যুবলীগের ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট ও  নেপালের নয় নাগরিক যাতে কোনোভাবেই দেশ ত্যাগ করতে না পারে তার জন্য বিশেষভাবে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। এছাড়া প্রতিদিন নতুন নতুন আরও নামের তালিকা তাদের কাছে আসছে বলেও জানান তিনি।

বাংলাদেশ বর্ডার গার্ড বিজিবির ৪৯ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল সেলিম রেজা ও ২১ ব্যাটালিয়ন বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল ইমরান উল্লাহ সরকার জানিয়েছেন, রাষ্ট্র ঘোষিত অপরাধীরা যাতে কোনো ভাবেই সীমান্ত পথে অবৈধভাবে ভারতে পালাতে না পারেন সে জন্য সীমান্ত এলাকায় সর্বচ্চ সতর্কতা জারি করা হযেছে।

 

নুরুজ্জামান লিটন

 

 

You may also like

বোর্ড-ক্রিকেটার দ্বন্দ্ব মেটাতে আলোচনার পথ খোলা: বিসিবি

বোর্ড-ক্রিকেটার দ্বন্দ্ব মেটাতে আলোচনার পথ খোলা রেখেছে বিসিবি।