মাদক ও অস্ত্রের মামলায় যুবলীগের বহিস্কৃত নেতা সম্রাট ১০ দিনের রিমান্ডে

যুবলীগের বহিস্কৃত নেতা ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটকে দশ দিনের রিমান্ড দিয়েছেন আদালত । রমনা থানার দায়ের করা অস্ত্র ও মাদক দুই মামলায় এ রিমান্ড দেন মহানগর হাকিম তোফাজ্জল হোসেন । রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী জানান, অস্ত্র ও মাদকের উৎস খুঁজতে রিমান্ডে নেয়া হয়েছে সম্রাটকে। তবে আসামির আইনজীবী রিমান্ডের বিরোধীতা করে বলেন, দুটি মামলায়ই জামিন পাওয়া উচিত ছিলো সম্রাটের। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে এগারোটার দিকে কেরাণীগঞ্জ কারাগার থেকে পুরান ঢাকার নিম্নআদালতে নিয়ে আসা হয় যুবলীগের বহিস্কৃত নেতা ইসমাইল হোসেন চৌধুরি সম্রাটকে। এসময় আগে থেকে অবস্থান নেয়া যুবলীগ নেতাকর্মীরা সম্রাটের মুক্তির দাবিতে নানা স্লোগান দেয়। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে আদালতের আশপাশের এলাকায় মোতায়েন করা হয় বিপুল সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য।

বেলা ১২টার দিকে সম্রাটকে তোলা হয় মহানগর হাকিম তোফাজ্জল হোসেনের আদালতে। রমনা থানায় দায়ের করা অস্ত্র ও মাদক দুই মামলায় বিশ দিনের রিমান্ড চায় ডিবি পুলিশ। উভয়পক্ষের যুক্তিতর্ক শুনে মহানগর হাকিম অস্ত্র মামলায় পাঁচদিন ও মাদক মামলায় পাঁচদিন মোট দশদিনের রিমান্ডের আদেশ দেন। তবে সম্রাটের আইনজীবী রিমান্ডের বিরোধীতা করে আদালতে যুক্তি উপস্থাপন করেন। সম্রাটের সহযোগী আরমানকেও মাদক মামলায় পাঁচ দিনের রিমান্ড দেয়া হয়। ছয় অক্টোবর কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থেকে আটক করা হয় সম্রাটকে। পরে তাঁর কার্যালয় তল্লাসী করে অস্ত্র, মাদক ও ক্যাঙ্গারুর চামড়া জব্দ করে rab. ক্যাঙ্গারুর চামড়া সংরক্ষণের অভিযোগে ছয় মাসের কারাদন্ড দিয়ে সম্রাটকে কারাগারে পাঠান ম্যাজিস্ট্রেট।
জিয়া খান, বাংলাভিশন, ঢাকা।

You may also like

১২ নভেম্বর, মঙ্গলবার ২০১৯

সকাল ৮:৩০ : দিন প্রতিদিন বেলা ১১:০৫ :