নিষেধাজ্ঞার পরও আশুলিয়ায় কয়েকটি কারখানা খোলা

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে বন্ধের নিষেধাজ্ঞার পরও সাভারের আশুলিয়ায় বেশ কয়েকটি কারখানা খোলা রেখেছেন গার্মেন্টস মালিকরা। অনেকে কাজে যোগ দিয়েছেন, আবার অনেককে বিক্ষোভ করতে দেখা গেছে। তবে গাজীপুরের গার্মেন্টস কারখানাগুলো বন্ধ রয়েছে। এদিকে, দ্বিতীয় দফায় কারখানা বন্ধ ঘোষণা করায় ঢাকা-টাঙ্গাইল ও ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে। সোমবারও সাভার ও আশুলিয়া শিল্পাঞ্চলের অন্তত অর্ধশত পোশাক তৈরির কারখানা খোলা দেখে গেছে। সকাল থেকেই এসব কারখানায় কাজে যোগ দেন শ্রমিকরা। আবার কয়েকটি কারখানার শ্রমিকদের, নিরাপত্তাহীনতার অভিযোগ এনে বিক্ষোভ করতে দেখা গেছে।

এ বিষয়ে কোন কথা বলতে রাজি হননি মালিকপক্ষ। এদিকে, বেপজার ঘোষণা অনুযায়ী ডিইপিজেডের কারখানাগুলো আজ থেকে বন্ধ রয়েছে। কারখানা বন্ধের খবরে সকালে ইপিজেডের মূল ফটকের সামনে জড়ো হয় বিপুল সংখ্যক শ্রমিক। কারখানা বন্ধের খবর জানা না থাকায়, তাদের এ জড়ো হওয়া। অন্যদিকে, ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধের ঘোষণায় গাজীপুরের অধিকাংশ পোশাক কারখানা শ্রমিকরা নিজ নিজ এলাকায় ফিরে যাচ্ছেন। এতে ঢাকা-টাঙ্গাইল ও ঢাকা- ময়মনসিংহ মহাসড়কে যাত্রীদের চাপ বেড়েছে। সড়কে বা বাজারে জনসমাগম ঠেকাতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন, গাজীপুর মেট্টোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোঃ আনোয়ার হোসেন। যানবাহন নিয়ন্ত্রণে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে গাজীপুর মেট্রো এলাকায় ৮টি চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। বাংলাভিশন নিউজডেস্ক।

You may also like

০৬ জুলাই, সোমবার ২০২০

সকাল ৮:৩০ : দিন প্রতিদিন বেলা ১১:০২ :