আমিনবাজারে ৬ ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা: ৯ বছরেও বিচার পাননি স্বজনরা

রাজধানীর আমিনবাজারে ছয় ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যার বিচার হয়নি নয় বছরেও। অপরাধীরা জামিনে ঘুরছে। শঙ্কা ও নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছেন নিহতদের স্বজনরা। বিচারকাজ দীর্ঘসূত্রিতার জন্য আসামিপক্ষের আইনজীবীদের সময়ক্ষেপনকে দায়ি করেছে রাষ্ট্রপক্ষ। সন্তান হারানোর কী বেদনা! ২০১১ সালের ১৭ জুলাই ভাগ্যরজনী শবে বরাতে আমিনবাজারের বড়দেশী গ্রামে ছয় শিক্ষার্থীর ভাগ্যে জোটে পিটুনিতে নির্মম মৃত্যু। টিপু, ইব্রাহিম খলিল, সিতাফ, পলাশ, কান্ত ও শামস রহিমকে হত্যার পর চলে ডাকাত বলে চালানোর অপচেষ্টা। কিন্তু তদন্তে নিহদের সে বদনাম ঘুচলেও অপরাধীদের শাস্তি নিশ্চিত করতে এখনো আদালতে ধর্ণা দিতে হচ্ছে তাদের।

আজও থামেনি তাদের কান্না। চাঞ্চল্যকর ঐ ঘটনায় বিক্ষোভ, আন্দোলন ও বিচারবিভাগীয় তদন্তসহ হয়েছে অনেক কিছুই । কিন্তু এখনো শেষ হয়নি বিচারকাজ। মানিক সিতাফের খুনের বিচার না দেখেই মারা গেছেন তার বাবা-মা। না ফেরার দেশে চলে গেছেন ইব্রাহিম খলিলের মা-ও। তবুও বিচারের আশা ছাড়েননি নিহতের অনেক স্বজন। মামলার ৬০ আসামীর মধ্যে প্রধান আসামী আব্দুল মালেকসহ ৫৪জনই জামিনে। রাষ্টপক্ষের আশ্বাস, অল্প সময়ের মধ্যে শেষ হবে বিচার কাজ। সন্তান হারানোর শোকের সাথে যোগ হয়েছে হুমকি-ধমকি। এ ব্যাপারে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীসহ সকলের সহযোগিতা চান নিহতদের স্বজনরা।

জিয়া খান, বাংলাভিশন, ঢাকা।

You may also like

করোনায় বন্ধের ঝুঁকিতে এলাকাভিত্তিক স্কুল ও কোচিং সেন্টার

করোনা ঝাপ্টার মাঝে প্রতিষ্ঠিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো কোনভাবে টিকে