বেগমগঞ্জে বিবস্ত্র করে নির্যাতিত গৃহবধূর আদালতে জবাববন্দি

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনায় আরও দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ নিয়ে এ মামলায় ছয়জনকে গ্রেফতার করা হলো। এদিকে, প্রাথমিক তদন্তে মানবাধিকার কমিশন প্রমাণ পেয়েছে এক বছর আগেই ওই নারীকে ধর্ষণ এবং এবারের নির্যাতন ও ভিডিও ধারণের মূলহোতা দেলোয়ার। মামলার এজাহারের পাঁচ নম্বর আসামি মো. সাজু এবং একলাশপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন সোহাগকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ ঘটনায় ঢাকা ও নোয়াখালীতে এ পর্যন্ত মামলার এজাহারভুক্ত চারজনসহ মোট ছয় আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মামলার প্রধান আসামি বাদলকে সোমবার রাতে বেগমগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করেছে RAB।

আজ সাজু, সোহাগ ও বাদলের রিমান্ড চাইবে পুলিশ। অন্য আসামি রহিম ও রহমতকে তিন দিন করে রিমান্ডে নিয়েছে তারা। এদিকে, সোমবার ২২ ধারায় নির্যাতিতার জবানবন্দি রেকর্ড করে আদালত। নোয়াখালীর চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক নবনীতা গুহ জবানবন্দি রেকর্ড করেন। জবানবন্দিতে নির্যাতনের শিকার ওই নারী অভিযোগ করেন, ঘটনার আটদিন পর ইউপি সদস্যকে জানান তিনি। কিন্তু ইউপি সদস্য তাঁকে ঘটনাটি চেপে যেতে বলেন। স্বর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে এ মামলা পরিচালনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন চট্রগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন।

You may also like

০৩ ডিসেম্বর, বৃহস্পতিবার ২০২০

সকাল ৮:৩০ : অনুষ্ঠান ‘দিন প্রতিদিন’। সকাল ১০:৩০