সিলেটের অভিযুক্ত এসআই আকবর লাপাত্তা

সিলেটের নেহারীপাড়ার পুলিশ ফাঁড়িতে যুবকে পিটিয়ে মরার ঘটনায় বরখাস্ত এসআই আকবর হোসেন ভূইয়া লাপাত্তা। আর মামলাটি পিবিআইয়ে স্থানান্তর করা হয়েছে। এদিকে, পরিবারের অভিযোগ, নিহতের স্বজনদের অভিযোগ, ১০ হাজার টাকা না পেয়ে পিটিয়ে ও নখ তুলে নির্মম নির্যাতনে রায়হানকে হত্যা করেছে এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়া। সিলেট থেকে দিপু সিদ্দিকীর রিপোর্ট। সিলেট নগরীর আখালিয়ার নেহারিপাড়ার পুলিশ ফাঁড়িতে রবিবার মৃত্যু হয় স্থানীয় যুবক রায়হান আহমদের।  হত্যার ঘটনায় রবিবার মধ্যরাতে সিলেট কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন নিহত রায়হানের স্ত্রী তানিয়া আক্তার তান্নি। পরিবারের অভিযোগ, পুলিশের দাবিকৃত ১০ হাজার টাকা চাঁদা না দেয়ায় পিটিয়ে ও নখ তুলে নির্মম নির্যাতনে রায়হানকে হত্যা করেছে এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়া। পুলিশের হেফাজতে এরকম মৃত্যুর প্রতিবাদ জানিয়েছেন সুশীল সমাজ।

নির্মম এই ঘটনায় তীব্র প্রতিবাদের মূখে সোমবার এসআই আকবর হোসেন ভুইয়াসহ চার পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। একইসাথে প্রত্যাহার করা হয় আরও তিন পুলিশ সদস্যকে। অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের দাবি, ছিনতাই করতে গিয়ে নগরীর কাস্টঘর এলাকায় গণপিটুনিতে নিহত হন রায়হান আহমেদ। কিন্তু আটক রায়হান পুলিশ সদস্যদের সাথে হেটে ফাঁড়িতে প্রবেশ করছেন এমন সিসিটিভি ফুটেজ পাওয়ার পর ব্যবস্থা নেয় সিলেট মেট্রোপলিন পুলিশ। নিহত রায়হান সিলেট নগরীর আখালিয়ার নেহারিপাড়ার বাসিন্দা। তার তিন মাসের এক মেয়ে রয়েছে। নগরীর রিকাবিবাজার স্টেডিয়াম মার্কেটে এক চিকিৎসকের চেম্বারে কাজ করতো সে। বাংলাভিশন নিউজডেস্ক।

You may also like

পদ্মা সেতুর ৫ হাজার একশ মিটার দৃশ্যমান

মুন্সিগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে পদ্মা সেতুর ৩৪ তম স্প্যান