গত তিন-চার বছর থমকে আছে বেসরকারি বিনিয়োগ প্রবৃদ্ধি

গত তিন-চার বছর থমকে আছে বেসরকারি বিনিয়োগ প্রবৃদ্ধি

গত তিন-চার বছর থমকে আছে বেসরকারি বিনিয়োগ প্রবৃদ্ধি। অর্থনীতির জন্য এটি ভালো ইঙ্গিত নয় বলে মনে করছেন অর্থনীতিবিদরা। দেশে রাজনৈতিক অনিশ্চয়তা পুরোপুরি না কাটা ও ব্যবসার পরিচালনার ব্যয় বৃদ্ধি এর প্রধান কারণ বলে মনে করেন তারা। অর্থনীতিবিদদের মতে, ব্যক্তি বিনিয়োগ বাড়ানো না গেলে ঘোষিত পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনার প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য অর্জনও কঠিন হয়ে পড়বে।

সরকারের বিনিয়োগ হয় মূলত রাস্তা-ঘাট, ব্রীজ নির্মানসহ অবকাঠামো উন্নয়নে। যা সহায়ক পরিবেশ সৃষ্টি করে ব্যক্তি বিনিয়োগে। তাই ধরেই নেয়া হয় সরকারি বিনিয়োগের সমান্তরালে বাড়বে বেসরকারি বিনিয়োগ। কিন্তু ২০১২-১৩ অর্থ-বছর থেকে সরকারি বিনিয়োগ উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়লেও বেসরকারি বিনিয়োগের চেহারার পরিবর্তন হচ্ছে না।

পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনার শেষ বছর ২০১৯-২০ অর্থ-বছরে সরকার আট শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে চায়। তা করতে হলে সরকারি-বেসরকারি বিনিয়োগকে জিডিপির ৩৪ দশমিক ৪ শতাংশে নিতে হবে। ব্যক্তি বিনিয়োগের বর্তমান ধারা বজায় থাকলে তা সম্ভব হবে না বলে মনে করেন তারা।

শুধু বড় অংকের বিনিয়োগ দিকে না তাকিয়ে, মাঝারি শিল্প বিকাশে সরকারের নীতি সহায়তা প্রয়োজন বলেও মনে করেন তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও

দিনাজপুরে জেএমবির দুই সদস্য গ্রেফতার

দিনাজপুরের রানীগঞ্জ থেকে জেএমবির সারওয়ার-তামিম গ্রুপের সক্রিয় দুই