ব্যাংক মালিকদের চাপের মুখে কেন্দ্রীয় ব্যাংক

ব্যাংক মালিকদের চাপে কেন্দ্রীয় ব্যাংকে ব্যাংকগুলোর নগদ জমার হার-সিআরআর এক শতাংশ কমানোর সিদ্ধান্তে খেলাপি ঋণ ও আগ্রাসী ব্যাংকিং বাড়বে, উস্কে দেবে মূল্যস্ফীতিকেও, আশংকা বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর সালেহউদ্দিন আহমেদের। তবে, ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের সংগঠন-এবিবি’র সভাপতির দাবি, নতুন সিদ্ধান্তের ফলে দু-এক মাসের মধ্যে ঋণের সুদহার এক অংকে নেমে আসবে।

দেশের ৫৭টি তফসিলি ব্যাংকে গ্রাহকদের আমানতের পরিমাণ এখন প্রায় ১১ লাখ কোটি টাকা। গ্রাহকদের স্বার্থ সুরক্ষায় এসব অর্থের সরবরাহ ঠিক রাখতে বিধিবদ্ধ জমা-এসএলআর হিসেবে ১৩ শতাংশ এবং নগদ জমার হার-সিআরআর হিসেবে সাড়ে ছয় শতাংশ জমা রাখে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। কিন্তু সম্প্রতি ব্যাংকগুলোর কাছে নগদ টাকার সংকট- এ দোহাই দিয়ে রবিবার রাজধানীর পাঁচতারা হোটেলে মালিকদের সঙ্গে গভর্নর ও অর্থমন্ত্রীর বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় সিআরআর এক শতাংশ কমানোর।

সিআরআর কমানোর ফলে ব্যাংক খাতে তারল্য বৃদ্ধির পাশাপাশি সুদহার ১০ শতাংশের নিচে নেমে আসবে বলে দাবি করেছেন ব্যাংকের শীর্ষ নির্বাহীদের সংগঠন-এবিবি’র সভাপতি ও ঢাকা ব্যাংকের এই ব্যবস্থাপনা পরিচালক। তবে, সাবেক গভর্নর সালেহউদ্দিন মনে করেন, সিআরআর কমানোর সিদ্ধান্ত নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে দেশের অর্থনীতিতে।

ব্যাংক মালিকদের দাবির মুখে সরকার তার তহবিলের অর্থ সরকারি-বেসরকারি ব্যাংকে সমান হারে রাখার সিদ্ধান্ত নিলেও ট্র্যাক রেকর্ড ভালো নয় এমন দুর্বল ব্যাংকে অর্থ রাখার ক্ষেত্রে আরো সতর্ক হওয়া জরুরি বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

You may also like

নির্বাচন এখনই প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে পড়েছে : মির্জা ফখরুল

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, নির্বাচন