ভোজ্য তেলের বাজার অস্থির হবে না ,গ্যারান্টি দিতে পারছে না ব্যবসায়ীরা

রোজার চাহিদার তুলনায় তিন গুন মজুদ থাকলেও ভোজ্য তেলের বাজার অস্থির হবে না – এমন গ্যারান্টি দিতে পারছেন না ব্যবসায়ীরা। কারণ, রোজা শুরু হলে অনেক রকম ভুতুড়ে ঘটনার নজির বাংলাদেশে বিরল নয়। এছাড়া নির্বাচনী বছরে বাড়তি মুনাফা হাতানোর মানসিকতাও রয়েছে। তাই ভোজ্য তেলের বাজার শক্ত হাতে নিয়ন্ত্রণের পরামর্শ বিশ্লেষকদের।

ইফতারির ভাজাপোড়া আর অন্যান্য প্রয়োজনে প্রতি রোজায় দেশে ভোজ্যতেলের চাহিদা তিন লাখ টন ছাড়িয়ে যায়। খুশির খবর, এই মুহুর্তে মজুদের পরিমান চাহিদার প্রায় তিন গুন। কিন্তু তারপরও নিঃশঙ্ক নন খুচরা ব্যবসায়ীরা। কারণ, মিল মালিকসহ বাজারজাতকরণের নানা স্তরেই তুঘলকি কাণ্ডের হাতছানি।

একই শঙ্কা বিশেষজ্ঞদেরও। তারা বলছেন, নির্বাচনী বছরে ব্যবসায়ীদের বিষয়ে বিশেষ সতর্কতা দরকার।বাজার তদারকিতে ভ্রাম্যমান আদালতের আওতা ও পরিধি বাড়ানোর তাগিদও দিচ্ছেন বিশ্লেষকরা।

 

You may also like

সিরিয়ায় রুশ বিমান ধ্বংসের জন্য ইসরায়েল দায়ী: রাশিয়া

সিরিয়ার বন্দর নগরী লাতাকিয়ার আকাশে ১৫ আরোহীসহ রাশিয়ার