ডাল ও ছোলার দাম বাড়ার শঙ্কা নেই: ব্যবসায়ীরা

আমদানি চাহিদার চেয়ে বেশি হওয়ায় এবার রোজায় ডাল ও ছোলার দাম বাড়ার শঙ্কা দেখছেন না ব্যবসায়ীরা। কিন্তু কেনার চেয়ে কম দামে বাজারে ছোলা-ডাল ছাড়তে বাধ্য হওয়া ক্ষুদ্র আমদানিকারকরা বলছেন, সরকারের পক্ষ থেকে আমদানি তথ্য আগাম জানানো হলে তাদের পুঁজি রক্ষা পেতো। দীর্ঘমেয়াদে বাজারেও আসতো স্থিতিশীলতা।

ডলারের উর্ধ্বগতির কারণে আমদানি-নির্ভর ডাল ও ছোলার বাজার অস্থির হবার শঙ্কা ছিলো অনেকের। কিন্তু সব মিলিয়ে বেশি পরিমানে আমদানির কারণে সেই শঙ্কা কেটে গেছে। মজুদ করলে নষ্ট হয়ে যায় বলে অনেক আমদানিকারক বাধ্য হচ্ছেন, কম মুনাফা বা কিছুটা ক্ষতি মেনে নিয়ে ডাল আর ছোলা বিক্রি করতে।

ডাল ব্যবসায়ী সমিতিরও আশ্বাস-এবার ডাল-ছোলার বাজারে কোনো দুঃসংবাদ থাকবে না। কিন্তু ক্ষতি স্বীকার করে যারা ডাল-ছোলা বেচবেন, তারা পরে চেষ্টা করবেন এ লোকসান অন্যভাবে পুষিয়ে নেয়ার। এতে বাজারে দীর্ঘমেয়াদে বিশৃঙ্খলার শঙ্কা থেকে যায়।

তাই আমদানিকারকদের দাবি, রাজস্ব বোর্ড আর কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সমন্বয়ে একটি তথ্য ডেস্ক খোলার। যাতে, আমদানির তথ্য অবাধ হয় ব্যবসায়ীদের জন্য। ভোক্তা ও ব্যবসায়ীদের স্বার্থ রক্ষায় দেশের আমদানি নীতিতে অবাধ তথ্যের বিষয়টি অন্তর্ভূক্ত করার দাবি তুলেছেন ব্যবসায়ীরা।

 

You may also like

টানা দুই জয়ে বাছাই পর্বে গ্রুপ শীর্ষে বাংলাদেশ

লেবাননকে উড়িয়ে দিয়ে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ বাছাইয়ে