আসছে বাজেটেও অগ্রাধিকার পাচ্ছে বিদ্যুৎ-জ্বালানি খাত

আসছে বাজেটেও গুরত্ব পাচ্ছে বিদ্যুৎ-জ্বালানি খাত। সরকারের লক্ষ্য সবার কাছে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ পৌছে দেয়া। গুরত্ব দেয়া হবে প্রাথমিক জ্বালানি অনুসন্ধান ও আমদানিতেও। তবে, বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিদ্যুৎ উৎপাদনের চাইতে মানসম্পন্ন সঞ্চালনের দিকে নজর দিতে হবে সরকারকে। আর জ্বালানি খাতে কমাতে হবে আমদানি নির্ভরতা।

দেশের বিনিয়োগের চাকা কোনদিকে ঘুরবে তা নির্ভর করে বিদ্যুৎ-জ্বালানি সরবরাহ ও আবকাঠামো খাতের উন্নযনের। সরকারি-বেসরকারি খাতের বিনিয়োগকারীরা চান নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ-গ্যাসের নিশ্চয়তা। তাই আসছে বাজেটে এ খাতেই অগ্রাধিকার দিতে চায় সরকার। ঘোষিত বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতেও গুরত্ব দেয়া হয়েছে এ খাতে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, উৎপাদনের দিক থেকে অনেক এগিয়েছে বিদ্যুৎ খাত। তবে তরল জ্বালানির ব্যবহার কমাতে হবে। নজর দিতে হবে মানসম্পন্ন সরবরাহের দিকে। পাশাপাশি গুরত্ব দিতে হবে প্রাথমিক জ্বালানি অনুসন্ধানে। আসছে অর্থবছরের এডিপিতে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি বিভাগের জন্য বরাদ্দ দেয়া হয়েছে প্রায় ২৭ হাজার কোটি টাকা।

You may also like

রোনালদোর লাল কার্ডের দিনেও জিতল জুভেন্টাস

জুভেন্টাসের হয়ে অভিষেকেই লাল কার্ড দেখলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো।