নাটোরে চামড়া বাজারে ধস

ট্যানারি মালিকরা কম দামে চামড়া কেনায় নাটোরে চামড়া বাজারে ধস নেমেছে। আসন্ন ঈদ-উল আযহার আগে পাওনা পরিশোধের জন্য সরকারের হস্তক্ষেপ চান তারা। এদিকে, চামড়া সংরক্ষণ ব্যবস্থা না থাকায় লোকসানে ব্যবসায়ীরা। পুঁজি সংকট ও দাম না থাকায় চামড়া পাচারের আশংকাও কম নয়।

দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম চামড়া বাজারে ব্যবসায়ী ও আড়ৎদাররা পাড় করছেন অলস সময়। ট্যানারি মালিকরা টাকা বাকি রাখায় আড়তদাররাও পাওনা পরিশোধ করতে পারছে না ব্যবসায়ীদের। কোরবানী ঈদের আর কয়েক দিন বাকি থাকলেও কোটি কোটি টাকার চামড়া পড়ে আছে আড়তগুলোতে।

এই সময়ে হঠাৎ চামড়ার দাম কমেছে অর্ধেকেরও বেশি। ফলে লোকসানে ব্যবসায়ীরা। আড়তদাররা বলছেন, চামড়া সংরক্ষণ করা গেলে হয়তো লোকসান পুষিয়ে নেয়া যেতো। ট্যানারি মালিকরা পাওনা পরিষদ না করলে আর্থিক সংকটে পড়বেন ব্যবসায়ীরা। প্রতি বছর কোরবানী ঈদের আগে ট্যানারি মালিকদের কাছ থেকে নিজেদের পাওনা আদায়ে সরকারের হস্তক্ষেপ চান ব্যবসায়ীরা।

নাটোরের চকবৈদ্যনাথ এলাকায় চামড়ার পাইকারী বাজারে আড়তের সংখ্যা আড়াইশ’। এখান থেকে দেশের ২২টি জেলার চামড়া কেনেন ট্যানারি মালিকরা। সারা বছর প্রায় ৭শ’ কোটি টাকার চামড়া কেনা-বেচা হয়। শুধু কোরবানীর চামড়াই বিক্রি হয় ৫শ’ কোটি টাকার।

You may also like

সাভারে ট্রাকচাপায় গার্মেন্টস শ্রমিকের পা বিচ্ছিন্ন

সাভারে ট্রাকচাপায় এক গার্মেন্টস শ্রমিকের পা বিচ্ছিন্ন হয়ে