আবারো গ্যাসের দাম বাড়ায় উদ্বেগ, মূল্যস্ফীতির আশংকা : বিশেষজ্ঞদের

আবারো গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধিতে পণ্যের উৎপাদন খরচ ও পরিবহন ব্যয় বেড়ে যাওয়ার সাথে সাথে মূল্যস্ফীতির আশংকাও থাকবে। এতে সবচে বেশি নেতিবাচক প্রভাব পড়বে মধ্যবিত্ত ও নিম্ন আয়ের মানুষের জীবন যাত্রায়। এছাড়া, ধনী-দরিদ্রের বৈষম্যও বেড়ে যাবে-এমনটাই মনে করেন অর্থনীতিবিদরা। সাধারণ মানুষরা বলছেন, তাদের কথা চিন্তা না করে হুটহাট গ্যাসের মূল্য বাড়িয়ে দিচ্ছে সরকার। বাস্তবতা হলো, প্রায় নিয়মিত বিরতিতেই গ্যাসের মূল্য বাড়ছে। বাণিজ্যিক ছাড়াও এবার ভোক্তা পর্যায়ে গ্যাসের দাম বাড়ানো হলো ৩২ দশমিক শূণ্য আট শতাংশ। রবিবার মূল্য বৃদ্ধির সে ঘোষণা দিলো এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন। নতুন মূল্য অনুযায়ী আবাসিকে গ্যাসের মূল্য বাড়লো একশ’ ৭৫ টাকা।

আর মিটারযুক্ত চুলার ক্ষেত্রে প্রতি ঘনমিটার গ্যাসের দাম ৯ টাকা ১০ পয়সা থেকে বাড়িয়ে করা হয়েছে ১২ টাকা ৬০ পয়সা। এটি কোনভাবেই গ্রহনযোগ্য নয় বলছেন, আমেনা ও আম্বিয়ার মতো গৃহিনীরা। সিএনজি প্রতি ঘনমিটারের দাম বাড়নো হয়েছে তিন টাকা। সিএনজি ও উবার চালকরা বলছেন, এতে যাত্রীভাড়া বাড়ানো ছাড়া তাদের কোন উপায় থাকবে না। অর্থনীতিবিদরা বলেন, বাণিজ্যিক পর্যায়ে গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধিতে দেশিয় কোম্পানির প্রতিযোগিতা সক্ষমতা কমে যাবে। আর শেষ বিচারে পণ্যের মূল্য মেটাতে হবে ভোক্তাদের। গ্যাসের দাম বাড়াতে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে কমিশনের কাছে প্রস্তাব দিয়েছিল গ্যাস বিতরণ কোম্পানিগুলো।

 

You may also like

১৭ জুলাই, বুধবার ২০১৯

বেলা ১২:০৫ : বাংলা সিনেমা বিকেল ৫:২০ :