আবরার হত্যার পরদিনও আন্দোলনে উত্তাল বুয়েট

আবরার ফাহাদের হত্যার জেরে উত্তাল বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়-বুয়েট ক্যাম্পাস। খুনীদের ফাঁসি, ছাত্রত্ব আজীবন বাতিল, রাজনৈতিক সংগঠনের নামে ছাত্র নিপীড়ন বন্ধ করাসহ আট দফা দাবিতে ক্যাস্পাসে আন্দোলন করছে শিক্ষার্থীরা । ৭২ ঘন্টার মধ্যে দাবি না মানা হলে লাগাতার আন্দোলনের হুমকি দিয়েছে তারা। ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবি জানিয়ে সব একাডেমিক কার্যক্রম বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে আন্দোলনকারীরা ।

দুর্গাপূজার বন্ধের মধ্যেও আবরার ফাহাদের মৃত্যুর প্রতিবাদে হাজারো বিক্ষোভকারীর ক্ষোভে কেঁপে উঠেছে বুয়েট ক্যাম্পাস। সকাল নয়টা থেকেই সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে বুয়েট শহীদ মিনারের কাছে জড়ো হতে থাকে বিক্ষুব্ধ ছাত্রছাত্রীরা। চায় সহপাঠী হত্যার বিচার। সাথে যোগ করে ভিন্নমত দমনের নামে ছাত্র নির্যাতন বন্ধ, ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ, উপাচার্য ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার দাবি। আবরারের খুনীদের ফাঁসি আর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের নির্লিপ্ততার প্রতিবাদে ক্যাম্পাসে মিছিল করে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা। মিছিল শেষে বুয়েট শহীদ মিনারের সামনে করে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ। শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সঙ্গে একাত্মতা জানিয়ে আন্দোলনের ঘোষণা দেয় বুয়েট শিক্ষক সমিতি।

ক্ষোভ জানান সাবেক বুয়েট শিক্ষার্থীরাও। ঘটনার পরপরই পালিয়ে যাওয়া বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ছাত্র কল্যান বিষয়ক কর্মকর্তা মিজানুর রহমানকে শশরীরে নিজের অবস্থান ব্যাখ্যার দাবি ছিলো শিক্ষার্থীদের। তার উপস্থিতিও আশ্বস্ত করতে পারেনি আন্দোলনকারিদের। তবে ঘটনার পর থেকেই নির্লিপ্ত ও অদৃশ্য বুয়েটের ভিসির দেখা এখনো পায়নি শিক্ষার্থীরা। এ দাবীতে বিকাল পাঁচটা পর্যন্ত অবস্থান কর্মসূচী ঘোষণা দিয়েছে তারা। এক পর্যায়ে রাজধানীর অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরাও আন্দোলনে যোগ দেয়। ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে স্লোগান দেয় আন্দোলনকারীরা।

 

You may also like

২৩ অক্টোবর, বুধবার ২০১৯

সকাল ৮:৩০ : দিন প্রতিদিন বেলা ১২:০৫ :