করোনার কারণে এ বছর কোন বার্ষিক পরীক্ষা হচ্ছে না

করোনার কারণে এ বছর কোন বার্ষিক পরীক্ষা হচ্ছে না। শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন হবে অ্যাসাইনমেন্টের মাধ্যমে। শিক্ষাবর্ষ বাড়ানো কিংবা নতুন শ্রেণিতে ভর্তির বিষয়ে সিদ্ধান্ত আরো পরে। করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতির উপর নির্ভর করবে আগামী এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার সিদ্ধান্ত। অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। টিউশন ফি’র বিষয়ে উভয়পক্ষকেই মানবিক ও যৌক্তিক আচরণ করারও পরামর্শ শিক্ষামন্ত্রীর।

করোনার কারণে গত ১৭ মার্চ থেকেই বন্ধ দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। বাতিল হয়েছে এইচএসসি ও সমমান, পঞ্চম শ্রেণির প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি এবং অষ্টম শ্রেণির জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা। এমন বাস্তবতায় ঘুরেফিরেই প্রশ্ন ছিল কি হবে অন্যান্য ক্লাসের?

অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি জানান, এবার কোন বার্ষিক পরীক্ষা হচ্ছে না। নভেম্বর-ডিসেম্বর এই দুই মাসে ৩০ কর্মদিবসে এনসিটিবির সিলেবাসের ভিত্তিতেই হবে মূল্যায়ন। এর বাইরে নেয়া যাবে না কোন পরীক্ষা। করোনা পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করবে সামনের সব শিক্ষাকার্যক্রম। মন্ত্রী জানান, স্কলারশিপ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি কার্যক্রম নিয়ে পরবর্তীতে আলোচনা করেই নেয়া হবে সিদ্ধান্ত। কথা বলেন, করোনার কারণে টিউশন ফি নিয় তৈরি হওয়া জটিলতা নিয়েও। জাতীয় পরীক্ষা ও মূল্যায়ন কেন্দ্র প্রতিষ্ঠার কথা জানান শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী।

You may also like

গোল্ডেন মনিরের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি এলাকাবাসির

গোল্ডেন মনিরের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও তার বাবার নামে