হনিমুনে যাবেন না রণবীর-দীপিকা ?

দীর্ঘ জল্পনার পর দিন দুয়েক আগে নিজেদের সম্পর্কের কথা প্রকাশ্যে স্বীকার করেছেন রণবীর সিংহ এবং দীপিকা পাড়ুকোন। বিয়ের দিন ঘোষণা করেছেন এই জুটি। আগামী ১৪ এবং ১৫ নভেম্বর হবে তাঁদের বিয়ের অনুষ্ঠান। কিন্তু বিয়ের পর নাকি হনিমুনে যাবেন না তাঁরা। কেন জানেন?

রণবীরের ঘনিষ্ঠ এক সূত্র সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, আগামী ২৮ ডিসেম্বর মুক্তি পেতে চলেছে রণবীরের ছবি ‘সিম্বা’। বিয়ের পরই তার প্রচারে ব্যস্ত হয়ে পড়বেন নায়ক। ফলে হনিমুনের জন্য সে সময় কাজ থেকে বিরতি নিতে পারবেন না। তবে ২০১৯-এর প্রথম দিকে বিদেশে হনিমুনে যেতে পারেন তাঁরা। কোথায় বেড়াতে যাবেন, তা নিয়ে ইতিমধ্যেই জল্পনা শুরু হয়েছে ইন্ডাস্ট্রিতে।

সঞ্জয় লীলা ভন্সালীর ‘রামলীলা’ ছবি থেকেই দীপিকা আর রণবীর ডেট করছেন বলে বলিউডে গুঞ্জন। ‘পদ্মাবত’-এর সেটে দু’জনের ঘনিষ্ঠতা আরও বাড়ে। তার পরই নাকি বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন তাঁরা। ইতালির লেক কোমোতে অষ্টাদশ শতাব্দীর এক প্রাসাদে নাকি বসবে তাঁদের বিয়ের আসর।

শোনা যাচ্ছে, বিয়ের আগে ১০ দিন ধরে বিশেষ পুজো চলবে দীপিকার বাড়িতে। রণবীর এবং তাঁর পরিবারের সদস্যরা নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহেই বেঙ্গালুরুতে দীপিকার বাড়িতে চলে যাবেন। দীপিকার মা ইতিমধ্যেই বেঙ্গালুরুর নন্দী মন্দিরের পুরোহিতদের সঙ্গে কথা বলে নিয়েছেন। পাত্র-পাত্রীকে নিয়ে সেখানেও নাকি পুজোর আয়োজন করা হবে।

বলি মহলের জল্পনা, ইতিমধ্যেই নাকি বিয়ের গয়না কিনে ফেলেছেন দীপিকা। তবে চিরাচরিত সোনা, হিরে বা প্ল্যাটিনাম নয়। নায়িকা নাকি স্পেশ্যাল দিনে রূপোর গয়নায় সাজতে চান। রানি মুখোপাধ্যায় বা অনুষ্কা শর্মার মতোই বিয়ের পোশাকের জন্য দীপিকাও ডিজাইনার সব্যসাচী মুখোপাধ্যায়ের ওপর নির্ভরশীল। বিয়ে এবং রিসেপশন— সব কিছুর জন্যই নাকি সব্যসাচীর ডিজাইনার আউটফিটে সাজবেন দীপিকা। যদিও কোনও কিছু নিয়েই প্রকাশ্যে এখনও কথা বলেননি তারকারা।

You may also like

প্রধানমন্ত্রীত্ব নয়,জনসেবাই আমার মূল লক্ষ্য : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রীর পদ মূল্যবান নয়, এ পদে থেকে দেশের