নিক-প্রিয়াঙ্কার বিয়ে আর দীপিকা-রণবীরের রিসেপশন একই দিনে?

একদিকে রণবীর-দীপিকা তো অন্য়দিকে প্রিয়াঙ্ক-নিক, দুই বিয়ে নিয়ে বি-টাউনে এখন সাজো সাজো রব। রবিবারই সোশ্যাল সাইটের মাধ্য়মে নিজেদের বিয়ের দিন ঘোষণা করেছেন ‘দীপবীর’। অন্যদিকে প্রিয়াঙ্কা-নিকের বিয়ের দিনও প্রকাশ্যে এসেছে। তবে এই পর্যন্ত সবকিছু ঠিকঠাকই ছিল। তবে মাঝে  কিছুটা গণ্ডগোল হয়ে গিয়েছে। ভাবছেন তো কী আবার ঘটল?

গণ্ডগোলটা ঘটেছে তারিখ নিয়। দীপিকা ও রণবীরের বিয়ের অনুষ্ঠান হচ্ছে ইতালির লেক কোমোতে আগামী ১৪ ও ১৫ নভেম্বর। আর প্রিয়াঙ্কা-নিকের বিয়ের আসর বসছে আগামী ১ ডিসেম্বর এদেশের যোধপুর প্যালেসে। গণ্ডগোলটা ঠিক এইখানেই।

শোনা যাচ্ছে, ওই ১ ডিসেম্বরেই নাকি মুম্বইতে রিসেপশনের আয়োজন করেছেন দীপিকা-রণবীর। সমস্যা হলো দীপিকা-রণবীর তাঁদের বিয়ের অনুষ্ঠানে বি-টাউনের বিশেষ কাউকে আমন্ত্রণ জানাননি। বিয়েটা হবে দুই পরিবার ও ঘনিষ্ঠ কিছু বন্ধু-বান্ধবদের উপস্থিতিতে।

তবে রিসেপশনে আমন্ত্রিত থাকবেন বি-টাউনের প্রায় সকলেই। তবে আবার ওই দিনই রাজস্থানের বিলাসবহুল যোধপুর প্যালেসে প্রিয়াঙ্কা-নিকের বিয়ের আসর বসছে। ওইদিনও বলিউড সেলেবদের নিমন্ত্রণ থাকবে সেটাই স্বাভাবিক। তবে প্রশ্ন হল কোন তারকা কোন বিয়েতে উপস্থিত থাকবেন? খুব স্বাভাবিক ভাবেই দুই বিয়েতে ভাগ হয়ে যাবেন বলি-তারকারা। আবার ক্যামেরার ঝলক নিয়েও কাড়াকাড়ি তো থাকবেই।

 

প্রিয়াঙ্কা ও দীপিকা, এই দুই তারকার সম্পর্ক যে মোটেও মধুর নয় সেটা হয়ত অনকেরই জানা। ব্যক্তিগত, পেশাদারি সব ক্ষেত্রেই একে অপরকে এড়িয়ে যেতেই পছন্দ করেন। তবে জীবনের অন্যতম সেরা দিনেও তাঁরা ইচ্ছে করেই তারিখ নিয়ে এই গণ্ডোগোলটা পাকালেন? প্রশ্ন তো উঠছেই…

 

যদিও শোনা যাচ্ছে প্রিয়াঙ্কা-নিকের বিয়েতে মাত্র ২০০ জনকেই আমন্ত্রণ জানানো হবে। তাই দীপিকার রিসেপশন অনুষ্ঠানে অতিথি তালিকা নিয়ে খুব বেশি সমস্যা নাও হতে পারে।

 

 

You may also like

প্রধানমন্ত্রীত্ব নয়,জনসেবাই আমার মূল লক্ষ্য : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রীর পদ মূল্যবান নয়, এ পদে থেকে দেশের