বিয়ের পরের জীবনটা এনজয় করছি, বলছেন শুভশ্রী

হনিমুন’ দিয়ে শেষ করেছিলেন। ‘রসগোল্লা’ দিয়ে শুরু করছেন। শেষ বা শুরু করছেন কে? ‘হনিমুন’ বা ‘রসগোল্লা’ই বা কী? প্রথম প্রশ্নের উত্তর শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়। আর ‘হনিমুন’ বা ‘রসগোল্লা’ দু’টোই হল বাংলা ছবি। আসলে শুভশ্রীর জীবনে একটা পরিবর্তন এসেছে। গত মে মাসে পরিচালক রাজ চক্রবর্তীকে বিয়ে করেছেন তিনি। প্রি-ম্যারেজ ফেজ কাটিয়ে এখন পোস্ট ম্যারেজ ফেজ চলছে তাঁর। বিয়ের আগে শেষ মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি ‘হনিমুন’। আর বিয়ের পর প্রথম মুক্তি পেতে চলেছে ‘রসগোল্লা’। পাভেল পরিচালিত ‘রসগোল্লা’ মুক্তি পাবে আগামী ২১ ডিসেম্বর। সে ছবিতে অতিথি শিল্পীর ভূমিকায় রয়েছেন শুভশ্রী। তাঁর চরিত্রের নাম মালকানজান। আগরার এক বাঈজি তিনি। যাঁর সঙ্গে রসগোল্লার আবিষ্কর্তা নবীনচন্দ্র দাশের সম্পর্ক ছিল দিদি এবং ভাইয়ের। নবীনচন্দ্রকে দোকান তৈরি করার জন্য টাকাও দিয়েছিলেন মালকানজান। কিন্তু শুভশ্রী মানেই নায়িকা। শুভশ্রী মানেই তিন ঘণ্টা সিনেমা হলের পর্দা জুড়ে থাকবেন। তা হলে এত কম স্ক্রিন প্রেজেন্সের একটা কাজে রাজি হলেন কেন? নায়িকার উত্তর, ‘‘আসলে রসগোল্লা বললেই বাঙালি বা কলকাতার কথা প্রথম মনে পড়ে। এই চরিত্র রসগোল্লার ইতিহাসের সঙ্গে জড়িয়ে। তাই অল্প সময়ের স্ক্রিন প্রেজেন্স হলেও আমি রাজি হয়েছিলাম।’’

You may also like

২১ আগস্ট, বুধবার ২০১৯

বেলা ১২:০৫ : বাংলা সিনেমা বিকেল ৫:২০ :