বন্যা ও ভূমিধসে আশ্রয়হীন হয়ে পড়েছে বহু রোহিঙ্গা পরিবার

Rohingya refugees walk through at Kutupalong refugee camp in Bangladesh's Ukhia district on April 5, 2018. / AFP PHOTO / MUNIR UZ ZAMAN

বর্ষা মৌসুম শুরু হওয়ার পর থেকেই বন্যা ও ভূমিধস হওয়ায় আশ্রয়হীন হয়ে পড়েছে কক্সবাজারের কুতুপালং ক্যাম্পে আশ্রয় নেয়া বহু রোহিঙ্গা পরিবার। এক ঘরে ঠাসাঠাসি করে অথবা পলিথিনের তৈরি অস্থায়ী ঘরে মানবেতর জীবন যাপন করছে তারা।

কুতুপালং ক্যাম্পের বেশিরভাগ ঘরবাড়ি বাশ ও কাঁদামাটির তৈরি বলে জানিয়েছেন সেখানে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গারা। এছাড়া পাহাড়ের গাছপালা কেটে ঘরবাড়ি তৈরি করায়, সেখানে প্রায়ই ভূমিধসের ঘটনা ঘটে। গত জুন থেকে এ পর্যন্ত সেখানে কমপক্ষে একশো’ ৬০ টির মতো ভূমিধসের ঘটনা ঘটেছে।

আর এতে এক শিশু নিহত ও অন্তত ৬০ জন আহত হয়েছে। আরো অন্তত দু’তিন মাস বৃষ্টিপাতের আভাস থাকায় আগামী দিনগুলো তাদের জন্য আরো কষ্টকর হবে বলে জানিয়েছেন, ক্যাম্পের ত্রাণ ও মানবাধিকার সংগঠনগুলোর সমন্বয়ক দল-আইএসসিজি’র এক মুখপাত্র।

বন্যা ও ভূমিধস প্রবণ এলাকায় অন্তত দুই লাখ রোহিঙ্গার বসবাস হওয়ায়, তারা মারাত্মক ঝুঁকির মুখে রয়েছে বলেও জানান তিনি। এরই মধ্যে ভূমিধসে ঘরবাড়ি হারিয়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছে অন্তত ৩৪ হাজার রোহিঙ্গা। তবে এখনও তাদের স্থায়ী ঘর জোটেনি। পরিস্থিতি মোকাবেলায় আবারো আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছে মানবাধিকার সংস্থাগুলো।

You may also like

পুলিশের সহযোগীতায় ছাত্রলীগ গাড়িতে আগুন দিয়েছে : মির্জা ফখরুল

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, পুলিশের