পটুয়াখালীর বাউফলের তৈরি মাটির পণ্য যাচ্ছে বিদেশেও

পটুয়াখালীর বাউফলের পাল পাড়ায় তৈরি মাটির পণ্য এখন দেশেই নয়, রপ্তানি হচ্ছে এশিয়ার বিভিন্ন দেশে। মৃত্তিকা শিল্পের উন্নয়নে সরকারি সহযোগিতা বাড়লে, বিশ্ব বাজারে বাংলাদেশি এই পণ্য বিপ্লব ঘটাতে পারবে বলে মনে করেন উদ্যোক্তারা। আপন মনে নকশা এঁকে এভাবেই মাটির পাত্রকে নান্দনিক রূপে প্রকাশ করছেন মৃৎশিল্পীরা। এক সময় মাটির হাঁড়ি, পুতুল ইত্যাদি তৈরিতে সপ্তাহের বেশি সময় লাগতো, এখন আধুনিক যন্ত্রের ছোঁয়ায় অনেক দ্রুত তৈরি করা যাচ্ছে মাটির তৈজষপত্র।

পটুয়াখালীর বাউফলে এভাবেই তৈরি হচ্ছে নজরকাড়া সব মাটির তৈরি নানা তৈজষপত্র। যা রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় যাচ্ছে। এমনকি এশিয়ার বিভিন্ন দেশেও রপ্তানি হচ্ছে। তাই সারা বছরই এসব পণ্য তৈরি করছেন উদ্যোক্তারা। এক সময় শুধু মাটির তৈরি শো-পিস কিংবা ফুলের টবের চাহিদা বেশি থাকলেও, বর্তমানে প্লেট, গ্লাস, বাটি থেকে শুরু করে ডিনার সেটও তৈরি হচ্ছে।

শৈল্পিক ডিজাইন আর স্বাস্থ্য সম্মত হওয়ায়, দিন দিন এসব পণ্য নিত্যপ্রয়োজনীয় তৈজষপত্র হয়ে দাঁড়িয়েছে অনেক পরিবারেই। দেশের দক্ষিণ-উপকূলে ব্যক্তি উদ্যোগে গড়ে ওঠা এই শিল্পের বিস্তৃতি এখন দেশ ছাড়িয়ে প্রবাসে। তাই এর প্রসারে নানা উদ্যোগের কথা জানায় স্থানীয় প্রশাসন। কুটির শিল্পের অন্যতম শিল্প হিসেবে মৃৎ শিল্পের উন্নয়নে সংশ্লিষ্টদের সুদৃষ্টি চান উদ্যোক্তারা।

 

You may also like

ঐক্য প্রক্রিয়ার সমাবেশে বিএনপি নেতারা

দেশের মানুষ ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত, আর তা পুনরুদ্ধারে