পটুয়াখালী থেকে হারিয়ে যাচ্ছে ঐতিহ্যবাহী খেজুরের রস

নানা কারনে পটুয়াখালীতে হারিয়ে যাচ্ছে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী খেজুরের রস। শীত মৌসুমে পিঠা পুলির আয়োজনের প্রধান এই উপাদানটি এখন অনেকটাই বিলুপ্ত। আর খেজুরের রস নিয়মিত সংগ্রহ না করায় মরে যাচ্ছে গাছগুলো। এ জন্য খেজুর রস সংগ্রহের শ্রমিকের অভাব এবং রস চুরির কারনে আগ্রহ হারিয়ে ফেলাকেই দায়ী করেছেন সংশ্লিষ্টরা।

পটুয়াখালীতে শীত মৌসুমে গ্রামগঞ্জের মানুষরা ভোর থেকে খেজুর গাছ থেকে রস সংগ্রহে ব্যস্ত থাকেন। এ অঞ্চলে খেজুর গাছ থেকে রস সংগ্রহকারিদের বলা হয় গাছি বা শিয়ালী। গাছ থেকে খেজুর রস নামিয়ে আনার পর তৈরি করা হয় নানা প্রকার পিঠা-পায়েস। আবার তাপালে এ রস ঠেলে তৈরি করা হয় বাটালি গুড়, ঝোলা গুড়, ভীড় মিঠাসহ নানা রকমের মজার মজার খাবার সামগ্রীও।

মানুষের পাশপাশি পাখিদের কাছেও খেজুর রস পছন্দের। তাইতো যেসব গাছ থেকে রস সংগ্রহ করা হয় এসব গাছের আশ পাশে পাখিদের কলকাকলিতে মুখর থাকে। তবে এখন আর গ্রামের প্রতিটি বাড়িতে দেখা যায়না খেজুর গাছ। আর যাও আছে তার অধিকাংশ গাছ থেকে রস সংগ্রহ করা হয়না। সংশ্লিষ্টরা বলছে, খেজুর রস সংগ্রহের জন্য দক্ষ শ্রমিকের অভাব রয়েছে। সেইসাথে রস সংগ্রহের আগেই চুরি হওয়ায় বিষয়টিতে হতাশ গাছের মালিকরা।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, জ্বালানি হিসেবে এই গাছের চাহিদা থাকায় যে পরিমান গাছ কাটা হচ্ছে সে পরিমান রোপন করা হয় না। এলাকাবাসীসহ সরকারের সংশ্লিষ্টদের গাছ রোপনের কর্মসূচি নেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

 

You may also like

রূপগঞ্জ ও আবাহনীর জয়

শিরোপা জয়ের জমজমাট লড়াই চলছে লিজেন্ড অব রূপগঞ্জ