উত্তরাঞ্চলে যমুনার পানি আবারও বাড়ছে

উত্তরাঞ্চলে যমুনার পানি আবারও বাড়তে থাকায় বিভিন্ন জায়গায় বন্যা পরিস্হিতির অবনতি হয়েছে। পানিবন্দি মানুষসহ আশ্রয়কেন্দ্র ও বাঁধে আশ্রয় নেয়া লোকজনের দুর্ভোগ বেড়েই চলেছে। মধ্যাঞ্চলে যমুনা, ব্রহ্মপুত্রসহ বিভিন্ন নদ-নদীর পানি বাড়ায় টাঙ্গাইল ও জামালপুরে প্লাবিত হয়েছে নতুন নতুন এলাকা। পানিবন্দি হয়ে মানবেতর দিন কাটাচ্ছেন পাঁচ লাখ মানুষ। একদিন বিরতি দিয়ে সিরাজগঞ্জে যমুনার পানি আবারও বেড়ে হার্ডপয়েন্টে বিপদসীমার ৪৬ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে বইছে। কাজিপুর পয়েন্টে প্রবাহিত হচ্ছে বিপদসীমার ৬৪ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে। সেইসাথে নদী ভাঙনে যমুনাপাড়ের বাসিন্দারা দিশেহারা। টানা ছয়দিন ধরে পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় জেলা সদর, কাজিপুর, চৌহালী, বেলকুচি ও শাহজাদপুর উপজেলার বন্যা পরিস্হিতির অবনতি হয়েছে। টাঙ্গাইলে যমুনা-ধলেশ্বরী ও ঝিনাই নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় জেলার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে।

জেলা সদর, নাগরপুর, দেলদুয়ার, ভূঞাপুর, কালিহাতী ও গোপালপুর উপজেলার ২১ টি ইউনিয়নের ৯৩ টি গ্রামের ১ লাখ ২৪ হাজারেরও বেশি মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। তলিয়ে গেছে প্রায় ৫ হাজার হেক্টর ফসলি জমি। জেলায় ধলেশ্বরী নদীর পানি এলাসিন পয়েন্টে বিপদসীমার ৮৮ ও ঝিনাই নদীর পানি যোকারচর পয়েন্টে বিপদসীমার ৩৯ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে বইছে। জামালপুরে যমুনা নদীর পানি সামান্য কমলেও ব্রহ্মপুত্র নদের পানি বাড়ায় ইসলামপুর, বকশীগঞ্জ ও সদরসহ জেলার কমপক্ষে ৩১৯ গ্রাম নতুন করে প্লাবিত হয়েছে। এতে প্রায় ৫০টি ইউনিয়নের সাড়ে তিন লাখের বেশি মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। খাবার সংকটে চরাঞ্চলের দরিদ্র ও দিনমজুররা।

কুড়িগ্রামে ধরলার পানি ব্রিজ পয়েন্টে বিপদসীমার ৪৫ সেন্টিমিটার, ব্রহ্মপুত্রের পানি চিলমারী পয়েন্টে বিপদসীমার ৪৭ সেন্টিমিটার ও নুনখাওয়া পয়েন্টে ৪৩ সেন্টিমিটারের ওপর দিয়ে বইছে। টানা সাতদিন ধরে পানিবন্দি ব্রহ্মপূত্র, দুধকুমার ও ধরলা নদী অববাহিকার প্রায় দুই লাখ মানুষ। এদিকে, গাইবান্ধার নদ-নদীগুলো থেকে বন্যার পানি নামতে শুরু করেছে। তবে এখনও জেলার প্রধান নদী ব্রহ্মপুত্র ও ঘাগট নদীর পানি বিপদসীমার ওপরে বইছে। নতুন করে বেড়েছে করতোয়া নদীর পানি। তীব্র আকার ধারণ করেছে খাবার ও বিশুদ্ধ পানির সঙ্কট। বগুড়ায় বানভাসি মানুষ তাদের গবাদি পশু নিয়ে পড়েছেন বিপাকে। বিশেষ করে সারিয়াকান্দি উপজেলার যমুনার চরে গবাদি পশুর সাথে গাদাগাদি করে থাকতে হচ্ছে তাদের। জেলায় যমুনার পানি এখনও বিপদসীমার ৬১সেন্টিমিটার ওপরে বইছে।

 

You may also like

স্ট্যামফোর্ডের শিক্ষার্থী সিফাতের জামিন

পুলিশের মামলায় জামিন পেয়েছেন স্ট্যামফোর্ডের শিক্ষার্থী সাহেদুল ইসলাম