জোয়ারের পানিতে ডুবছে চট্টগ্রাম মহানগরীর নিচু এলাকা

বৃষ্টি ছাড়াই জোয়ারের পানিতে ডুবছে চট্টগ্রাম মহানগরীর নিচু এলাকাগুলো। মহেশখাল ও চাকতাই খাল সংলগ্ন এলাকাগুলো অমাবস্যার জোয়ারে দুই থেকে তিন ফুট পর্যন্ত পানিতে তলিয়ে যায় প্রতিদিন। জলাবদ্ধতা নিরসনে সিডিএ’র মেগা প্রকল্পের কাজ চললেও কাংখিত সুফল মিলছেনা বলে অভিযোগ নগরবাসীর। সমুদ্রে জোয়ারের পানির উচ্চতা বাড়ায় চট্টগ্রাম বন্দরের স্থাপনাসহ নগরীর একাংশের লোকজনের দূর্ভোগ বেড়েছে চরমভাবে। বসবাসের অনুপযোগি হয়ে ওঠছে এসব এলাকা।

বৃষ্টি ছাড়াই জোয়ারের পানিতে চাকতাই-খাতুনগঞ্জ,হালিশহর, আগ্রাবাদ, সিডিএসহ নীচু এলাকা হাঁটু থেকে কোমর পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে। জলমগ্ন হয়ে পড়ে হাসপাতালও। চরম দুর্ভোগে পড়েন রোগী ও তাদের স্বজনরা। ক্ষতির সম্মুখীন ব্যবসায়ীরাও। জলাবদ্ধতা নিরসনে পরিকল্পনার সঠিক বাস্তবায়ন চায় সুশীল সমাজ। নগর বিশেষজ্ঞরা বলছেন, জলাবদ্ধতা নিরসনে টাইডাল রেগুলেটর তৈরী করার পাশাপাশি হাইলি পাম্প ব্যবহার করতে হবে। প্রায় ৬ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে ২০১৮ সাল থেকে সেনাবাহিরীর তত্ত্বাবধানে জলাবদ্ধতা নিরসনে মেগা প্রকল্পের কাজ চলছে। কাজ শেষ হলে জলাবদ্ধতা নিরসন হবে বলে জানালেন, সিডিএ চেয়ারম্যান।জবদ্ধতা থেকে মুক্তি পেতে উপকূলীয় এলাকায় টেকসই বাঁধ নির্মাণের পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের।

You may also like

পটুয়াখালী স্পীডবোট ডুবির ঘটনায় চারজনের লাশ উদ্ধার

পটুয়াখালীর আগুনমুখা নদীতে স্পীডবোট ডুবির ঘটনায় পাঁচজনের লাশ