সিডরের একযুগ পরেও নির্মাণ হয়নি টেকসই বেড়িবাঁধ

সিডরের একযুগ পরও টেকসই বেড়িবাঁধ হয়নি বরগুনার পাথরঘাটার পদ্মা ও জিনতলা এলাকায়। ১২ বছরে অন্তত ১২ বার ভেঙেছে বাঁধ দু’টি। সবশেষ অস্বাভাবিক জোয়ারে পদ্মার বেড়িবাঁধের এক কিলোমিটার ভেঙে তলিয়েছে বিস্তির্ণ এলাকা। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ফসলি জমি ও মাছের ঘের। নামমাত্র মেরামতে অপচয় হচ্ছে সরকারের লাখ লাখ টাকা।

বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার বলেশ্বর ও বিষখালী নদী ঘেঁষা জিনতলা ও পদ্মা বেড়িবাঁধ। ২০০৭ সালের ১৫ নভেম্বর সিডরে ভাঙে বাঁধ দুটি। এরপর ১২ বছরেও হয়নি স্থায়ী বাঁধ। এখন সামান্য জোয়ারেই ভাঙে বাঁধ। তলিয়ে যায় বিস্তির্ণ এলাকা। আট গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ দিনে-রাতে ভাসে জোয়ারের পানিতে। তারা বলছেন, স্থায়ী বাঁধ না হলে নদীগর্ভে যাবে গ্রামগুলো।

টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণে কর্তৃপক্ষ বারবার আশ্বাস দিলেও নেই কোন উদ্যোগ। স্থানীয়দের অভিযোগ, ভাঙন দেখা দিলেই অস্থায়ী মেরামতে ঠিকাদাররা হাতিয়ে নেয় লাখ লাখ টাকা।  তবে, বর্ষার অযুহাত পানি উন্নয়ন বোর্ডের। বেড়িবাঁধ নির্মাণে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের ওপর নজরদারি বাড়ানোর পাশাপাশি টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণের আশ্বাস দিয়েছেন জেলা প্রশাসক।  টেকসই বেড়িবাঁধের জন্য আর কত অপেক্ষা করতে হবে জানে না উপকূলবাসী।

You may also like

খালেদা জিয়ার যুক্তরাজ্যের ভিসা পেতে কোনো বাধা নেই : রবার্ট

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া চিকিৎসার জন্য যুক্তরাজ্যে