১৬ বছর ধরে শেকলে বেঁধে রাখা হয়েছে গোলাম মওলাকে

দীর্ঘ ১৬ বছর ধরে শেকলেবন্দি জীবন কাটাচ্ছেন রংপুরের পীরগঞ্জের নিভৃতপল্লীর এক মানসিক রোগী। ন্যূনতম মানবিকতা না দেখিয়ে পশুর চেয়েও নির্মমভাবে বন্দী করে খাচায় রাখা হয়েছে তাকে। বেঁচে থাকার সব সুযোগ থেকে বঞ্চিত মানুষটি। পাঁয়ে বেড়ি পরিয়ে গাছের সাথে শক্ত শেকলে এভাবেই বেঁধে রাখা হয়েছে গোলাম মওলাকে। পাশের ঝুপড়ি ঘরটি তার আবাসস্থল।

জীবনের বড় একটি সময় সুস্থ সবল থাকলেও একপর্যায়ে স্বাভাবিকতা হারান পঞ্চাশোর্ধ্ব মওলা। তার অস্বাভাবিক আচরণে ক্ষুব্ধ স্বজনরা। ১৮ বছর আগে নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিলেন মওলা। প্রায় ১৫ বছর পর তাকে খুঁজে পান স্বজনরা। চিকিৎসায়ও কোন ফল হয়নি। পীরগঞ্জের ভেন্ডাবাড়িতে আর্থিক দৈন্যতায় থাকা পরিবারটি সমাজের চাপে বাধ্য হয়ে আটকে রাখেন তাকে। সেই থেকে বাড়ির পাশের ঝোপঝাড়ে শেকলেবন্দি মওলা। তাকে সহযোগিতার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি। এই অমানবিকতা থেকে মওলাকে মুক্তি দিতে বিত্তশালীদের সহযোগিতা চান মানবধিকার কর্মীরা। সবার সহযোগিতা ও ভালোবাসা পাওয়ার আকুতি গোলাম মওলার।

You may also like

০৩ ডিসেম্বর, বৃহস্পতিবার ২০২০

সকাল ৮:৩০ : অনুষ্ঠান ‘দিন প্রতিদিন’। সকাল ১০:৩০