মিয়ানমারের গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় অচলাবস্থা বিরাজ করছে

রোহিঙ্গাদের ওপর বর্বর নির্যাতন ও গণহত্যায় অভিযুক্ত সেনা কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে অবিলম্বে বিচার শুরুর তাগিদ দিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে জাতিসংঘের বিশেষ তদন্ত কমিশন। ১৮ মাসের তদন্ত এবং সাড়ে আটশ’র বেশি সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে চারশ’ চুয়াল্লিশ পৃষ্ঠার বহু প্রতিক্ষিত প্রতিবেদন প্রকাশ করলো জাতিসংঘের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং কমিশন।

মিয়ানমারের সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইনসহ রোহিঙ্গা নির্যাতনে অভিযুক্ত সেনা কর্মকর্তাদের বিচার নিশ্চিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে এতে। সেইসাথে, মিয়ানমারের রাজনীতিকে সেনা হস্তক্ষেপ মুক্ত করতে ব্যবস্থা গ্রহণেরও তাগিদ দেয়া হয়েছে।

ওই প্রতিবেদনে জানানো হয়, নিধন অভিযানে কমপক্ষে ১০ হাজার রোহিঙ্গাকে হত্যা করা হয়েছে। সেনাবাহিনীর হাতে থাকা স্বরাষ্ট্র, সীমান্ত এবং প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এই নিধন অভিযানের সহায়ক হিসেবে ভূমিকা রেখেছে।

স্টেট কাউন্সিলর অং সান সুচির সমালোচনা করে ওই প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, রাখাইনে হত্যা, ধর্ষণ, অগ্নিসংযোগের মতো মানবতাবিরোধী অপরাধ হয়েছে এমন অভিযোগের বিশ্বাসযোগ্যতার পক্ষে যথেষ্ট যৌক্তিকতা রয়েছে।

You may also like

স্বাধীনতার অসাম্প্রদায়িক চেতনাতেই এগিয়ে যাচ্ছে দেশ : প্রধানমন্ত্রী

সব ধর্মের মানুষ সমান অধিকার নিয়ে ধর্ম পালন