ভারতে তিন তালাক ফৌজদারি অপরাধ হিসাবে গণ্য

রাজ্যসভায় পাশের আগেই তিন তালাক বিলুপ্তির পক্ষে অধ্যাদেশ জারি করলো ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। এই নির্দেশনা অমান্যকারীদের ভোগ করতে হবে জেল-জরিমানার দণ্ড। মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে আইনমন্ত্রী রবী শঙ্কর প্রসাদ জানান, প্রচলিত নিয়মে অধ্যাদেশে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ সই করার পর তিন তালাক ফৌজদারি অপরাধ হিসাবে গণ্য হবে।

নির্দেশনা অমান্যকারীদের সর্বোচ্চ তিনবছরের কারাদণ্ড এবং জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে। স্ত্রীর আবেদনের ভিত্তিতে অভিযুক্তের সাজা মওকুফেরও সুযোগ রয়েছে। নয়া আইনে হিল্লা বিয়ের রীতিও বিলুপ্তির প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। তবে, সংসদীয় নিয়ম অনুযায়ী ছ’মাসের মধ্যে সংসদের উভয় কক্ষে অধ্যাদেশ পাশ করতে হয়।

তিন তালাক বিলুপ্তির প্রস্তাবটি এরইমধ্যে লোকসভায় পাস হয়েছে। নানা জটিলতায় এটি রাজ্যসভায় পাশের ক্ষেত্রে অনিশ্চয়তার মুখে পড়লে অনেকটা তড়িঘড়ি করেই অর্ডিন্যান্স জারি করে তিন তালাকের বিলুপ্তিকে আইনি স্বীকৃতি দিলো কেন্দ্র।

অবশ্য, আগেই তিন তালাককে অবৈধ ঘোষণা করেছিল সুপ্রিম কোর্ট। পরে শীর্ষ আদালতের রায়কে মর্যাদা দিতেই তৈরি হয় মুসলিম উইমেন প্রটেকশন অব রাইটস অন ম্যারেজ বিল ২০১৭।

You may also like

স্বাধীনতার অসাম্প্রদায়িক চেতনাতেই এগিয়ে যাচ্ছে দেশ : প্রধানমন্ত্রী

সব ধর্মের মানুষ সমান অধিকার নিয়ে ধর্ম পালন