নতুন করে রোহিঙ্গা নির্যাতনের সতর্কবার্তা জাতিসংঘের

চলতি মাসেই রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু হলে নতুন করে বর্বর নির্যাতন হওয়ার সতর্কবার্তা দিয়েছেন জাতিসংঘ মানবাধিকার কমিশনের তদন্ত কর্মকর্তা ইয়াংঘি লী। তিনি প্রত্যাবাসনের সময় পেছানোর আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি জানান, রোহিঙ্গাদের জন্য মিয়ানমারে নিরাপদ পরিবেশ তৈরি হয়েছে এমন বিশ্বাসযোগ্য কোন প্রমাণ মেলেনি।

তাই আবারো হত্যা-ধর্ষণের শিকার হতে পারে রোহিঙ্গারা। তাছাড়া, প্রত্যাবাসনের মতো গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তে রোহিঙ্গাদের মতামত গ্রহণের তাগিদ দিয়েছেন ইয়াংঘি লী। গেলো ৩০ অক্টোবর বাংলাদেশ-মিয়ানমারের মধ্যে প্রত্যাবাসনের এক সমঝোতার জেরে এই প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশন।

এরআগে, জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থাও এমন শঙ্কা প্রকাশ করেছে। সমঝোতা অনুযায়ী চলতি মাসের মাঝামাঝি রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সেনা ও কট্টর বৌদ্ধদের বর্বরতায় গেলো দু’বছরে সাত লক্ষাধিক রোহিঙ্গা বাংলাদেশে প্রবেশ করে। এতে, এদেশে আশ্রিত রোহিঙ্গার সংখ্যা ১০ লাখ ছাড়িয়ে যায়।

You may also like

প্রধানমন্ত্রীত্ব নয়,জনসেবাই আমার মূল লক্ষ্য : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রীর পদ মূল্যবান নয়, এ পদে থেকে দেশের